গৌরনদী সংবাদ

চলে গেলন শহীদ আব্দুর রব ছেরনিয়াবাত বৃদ্ধ নিবাসে পরিচয়হীন বৃদ্ধ তাজুল

ফরিদপুরের সদরপুর হাসপাতাল থেকে উদ্ধারকৃত পরিচয়হীন বৃদ্ধ তাজুল ইসলামকে গত ২৩ মে আশ্রয় দেয়া হয় বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার সেরাল গ্রামে সাবেক চিফ হুইপ আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ্-এমপি প্রতিষ্ঠিত ‘শহীদ আব্দুর রব ছেরনিয়াবাত এতিমখানা ও বৃদ্ধ নিবাসে’।

২২ মে কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে ‘কে এই বৃদ্ধ’ শিরোনামে সংবাদ দেখে ২৩ মে সকালে গৌরনদী উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র হারিছুর রহমান হারিছকে সদরপুর হাসপাতালে পাঠিয়ে নাম-পরিচয়হীন বৃদ্দকে আশ্রয়দানের উদ্দেশ্যে আনতে পাঠান।

বাক ও চলৎশক্তিহীন বৃদ্ধ তাজুল পেল নতুন ঠিকানা। তার সর্বশেষ অশ্রয়স্থল হল সেরাল শহীদ আব্দুর রব ছেরনিয়াবাত এতিমখানা ও বৃদ্ধ নিবাস। বৃদ্ধ তাজুলের পরিচর্যার জন্য ৩জন লোক নিয়োগ করলেন সাবেক চিফ হুইপ।

এরপর বিভিন্ন সময়ে বৃদ্ধ তাজুলের শারিরীক অবস্থার জন্য স্থানীয় হাসপাতালের চিকিৎসক, ক্লিনিক ও বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি পূর্বক চিকিৎসা করানো হয়। তাকে দেয়া হয় উন্নত চিকিৎসা, প্রয়োজনীয় পথ্য ও সুষম পুষ্টিকর খাবার। এতকিছুর পরে তার শারিরীক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও অবশেষে তাকে চলে যেতে হল না ফেরার দেশে।

রোববার বেলা আনুমানিক ৩:১৫ মি: বৃদ্ধ তাজুল ইসলাম ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি…..রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ৭০ বছর।

সর্বশেষে সে শুধু তার নাম তাজুল ইসলাম ও জেলা নড়াইল বলতে পারত। রোববার বাদ এশা মরহুমের জানাজার নামাজ শেষে বৃদ্ধ নিবাসের নির্ধারিত কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সাবেক চিফ হুইপ আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ্-এমপি’র জ্যেষ্ঠপুত্র কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ্, আগৈলঝাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তুজা খান, গৌরনদী পৌর মেয়র হারিছুর রহমান হারিছ প্রমুখ।

এছাড়াও বরিশাল জেলা, মহানগর, গৌরনদী, আগৈলঝাড়া ও অন্যান্য উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বৃদ্ধ নিবাসের প্রথম নিবাসী তাজুল ইসলামের জানাজায় অংশগ্রহণ করেন।

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button