গৌরনদী সংবাদ

উত্তর চাঁদশীতে বৈদ্যুতিক সাইড লাইনের ছেড়া তারে জড়িয়ে কৃষক ও নসিমন চালকের মৃত্যু

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার চাঁদশী ইউনিয়নের উত্তর চাঁদশী গ্রামে বৃহস্পতিবার বিকালে গবাদী পশুর ঘাস কাটতে গিয়ে বৈদ্যুতিক সাইড লাইনের ছেড়া তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎষ্পৃষ্ট মারা যান কৃষক ঠান্ডু বেপারী ওরফে ঠান্ডু কারিকার (৪০)। তার লাশ উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশের উপস্থিতিতে ওই রাতে একই ভাবে মৃত্যু হয় নসিমন চালক সোনাজুল হাওলাদার (৩০) ও আহত হয় আরো দুই জন। নিহতরা বাঙ্গিলা গ্রামের মৃত ওফাজদ্দিন বেপারীর ছেলে ঠান্ডু কারিকার ও মৃত সিরাজ হাওলাদারের ছেলে সোনাজুল হাওলাদার।


পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার বাঙ্গিলা গ্রামের ঠান্ডু বেপারী ওরফে ঠান্ডু কারিকার বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে গরুর জন্য ঘাস কাটতে পাশ্ববর্তী সাত কাপলা এলাকার উত্তর চাঁদশী গ্রামের রতন খানের পান বরজের কাছে যায়। বাদমাগরিব সে বাড়ি ফিরে না আসায় স্বজনরা অনেক খোঁজাখুজি করে রাত ৯টার দিকে তার পান বরজের পাশে বাপ্পী সরদারের বৈদ্যুতিক সাইড লাইনের ছেড়া তারে জড়ানো তার (ঠান্ডু বেপারীর) লাশ দেখতে পায়। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঠান্ডু মারা যাওয়ার খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসার খবর শুনে উৎসুক প্রতিবেশী নসিমন চালক সোনাজুল হাওলাদার, সলেমান বেপারী ও জালাল ঘটনাস্থল দেখতে গিয়ে ওই ছেড়া তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। তার সঙ্গীরা ডাকচিৎকার দিলে পুলিশ ও স্থানীয়রা মিলে মুমুর্ষ অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সোনাজুল হাওলাদারকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য দুই জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিদ্যুস্পৃষ্ট হয়ে দুই জন মারা যাওয়ার ঘটনায় পল্লী বিদ্যুৎ গৌরনদী জোনাল অফিসের জুনিয়ার ইঞ্জিনিয়ার আনিসুর রহমান বাদি হয়ে মামলা দায়েরের করেছেন। ময়না তদন্তের জন্য লাশ ২টি বরিশাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।


এ ব্যাপারে পল্লী বিদ্যুৎ গৌরনদী জোনাল অফিসের ডিজিএম মো. আবদুল মালেক বলেন, বিদ্যুৎ গ্রাহক শুকুমার হালদারকে আসামি করা হয়েছে।

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button