আর্কাইভ

বরিশালের মাধবপাশায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ষষ্ট শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে ঘটনার ১১দিন পর বরিশাল আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালতের বিচারক মোঃ জাহিদুল কবির বিমানবন্দর থানার ওসিকে মামলাটি এজাহার হিসেবে গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার দুপুরে আদালতের নির্দেশনার কাগজপত্র হাতে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন থানার এস.আই আবুল বাশার।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মাধবপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ও একই গ্রামের আরিফুর রহমানের কন্যা মুন্নী আক্তারকে স্কুলে যাওয়া আসার পথে একই গ্রামের বখাটে যুবক মিজানুর রহমান সরদার প্রায়ই উত্যক্ত করে আসছিলো। হত্যাকান্ডের কিছুদিন পূর্বে আসামি মিজানুর রহমান স্কুল থেকে ফেরার পথে মুন্নীকে জোরপূর্বক একটি পান বরজের মধ্যে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। এ সময় তার ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে মিজানুর পালিয়ে যায়। এরইমধ্যে গত ২ ফেব্র“য়ারি রহস্যজনক ভাবে মুন্নী বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। গত ৯ ফেব্র“য়ারি সকালে মিজানুরের বাড়ির পাশ্ববর্তী বাগানের একটি কাঁঠাল গাছের সাথে মুন্নীর ঝুঁলন্ত লাশ দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। মুন্নীকে পরিকল্পিতভাবে মিজানুর রহমান ও তার সহযোগীরা ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ কাঁঠাল গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ এনে মুন্নীর মা জাহানার বেগম বাদি হয়ে মঙ্গলবার বরিশাল অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় আসামি করা হয়েছে মিজানুর রহমান সরদার ও তার সহযোগী রিয়াজ সরদার, তসলিম ও রাকিবকে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »