আর্কাইভ

দক্ষিনে সরিষার বাম্পার ফলন

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ দক্ষিনাঞ্চলে সরিষার ভালো ফলন হয়েছে বলে জানিয়েছে কৃষি কর্মকর্তারা। বাজারদর ভালো থাকায় বেড়েছে আবাদের পরিমান। কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতর সুত্র জানিয়েছে, দক্ষিনাঞ্চলে ২০১২-১৩ অর্থবছরে সরিষার আবাদের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়েছিলো ৪১ হাজার ২৮৪ হেক্টর। এর মধ্যে আবাদ হয় ৪৩ হাজার ৭ হেক্টর জমিতে।

কৃষি কর্মকর্তা জানান, প্রতিমন সরিষা উৎপাদনে ব্যয় হয় ৩০০ টাকা। বর্তমানে বাজার দর প্রতিমন ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা। এই কারনে কৃষকরা সরিষা আবাদ বেশি করেছে। কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতর সুত্র জানিয়েছে বরিশাল জেলায় সরিষার আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ২ হাজার ২৫৪ হেক্টর ধরা হলেও চাষ হয়েছে ২ হাজার ২৭৪ হেক্টর জমিতে। এখন পর্যন্ত ৫৫০ হেক্টর জমির সরিষা কর্তন করেছে কৃষকরা। হেক্টর প্রতি ১.১০ মেট্টিক টন সরিষা পাওয়া গেছে। সন্তোষজনক উৎপাদন বলে জানিয়েছেন কৃষি কর্মকর্তারা। এছাড়াও কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতরের আওতাধীন পিরোজপুর জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ১২৮ হেক্টর। চাষ হয়েছে ১৩০ হেক্টর জমিতে। পটুয়াখালী  ও বরগুনা জেলায় লক্ষ্যমাত্রার কম আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে পটুয়াখালী জেলায় লক্ষ্যমাত্র  ছিলো ২৮৮ হেক্টর। চাষ হয়েছে ২৭০ হেক্টর জমিতে। বরগুনায় ১১১ হেক্টরে আবাদ হয়েছে ৮৫ হেক্টর। ঝালকাঠি জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ৩৮২ হেক্টর। চাষ হয়েছে ৪৫৬ হেক্টর জমিতে। ভোলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ১ হাজার ৪৩৯ হেক্টর। আবাদ হয়েছে ১ হাজার ৮৪০ হেক্টর জমিতে। পিরোজপুর জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ১২৮ হেক্টর। চাষ হয়েছে ১৩০ হেক্টর জমিতে।

ফরিদপুর জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ৯ হাজার ৭৬০ হেক্টর। আবাদ হয়েছে ৯ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে। শরিয়তপুর জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ৮ হাজার ৬২১ হেক্টর। চাষ হয়েছে ৮ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে। গোপালগঞ্জ জেলায় ৩ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে। এই জেলায় লক্ষ্যমাত্র ছিলো ৪ হাজার ১১৩ হেক্টর জমি। মাদারীপুরে ১০ হাজার ৫৩১ হেক্টর লক্ষ্যমাত্রায় আবাদ হয়েছে ১১ হাজার ৭৯২ হেক্টর জমিতে এবং রাজবাড়িতে ৩ হাজার ৬৫৭ হেক্টরের বিপরীতে আবাদ হয়েছে ৩ হাজার ৮১০ হেক্টরে।

কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতরের অতিরিক্তি পরিচালক খোন্দকার সিরাজুল করিম বলেন, জাতভেদে উৎপাদন হেরফের হলেও সন্তোষজনক। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজার ৪৫৮ হেক্টর জমির সরিষা ঘরে তুলেছে কৃষক।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »