আর্কাইভ

গৌরনদীতে দু’কাউন্সিলরসহ আ’লীগের ৩০ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার ॥  বরিশালের গৌরনদী উপজেলার সুন্দরদী গ্রামের একটি সংখ্যালঘু পরিবারের সম্পত্তি দখল করে ঘর উত্তোলন, পল্লী বিদ্যুতের প্রকৌশলীসহ ৫ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে মারধর ও উপজেলা এলজিইডি বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলীর ওপর হামলার ঘটনায় পৃথক ভাবে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ও রাতে গৌরনদী থানায় দায়ের করা মামলায় দু’পৌর কাউন্সিলর, এক ইউপি সদস্যসহ আ’লীগের কমপক্ষে ৩০জন নেতা-কর্মীকে আসামি করা হয়েছে।

গৌরনদী থানার ওসি আবুল কালাম জানান, আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মঙ্গলবার সকালে পৌর সদরের সুন্দরদী মহল্লার কানাই লাল চন্দের সম্পত্তি দখল করে ঘর উত্তোলন ও লুটপাটের অভিযোগ এনে দিপক দত্ত বাদি হয়ে পৌর কাউন্সিলর ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কাজী তৌফিক ইকবাল সজল, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য রুবেল তালুকদার, শাহাদাত তালুকদার, জুয়েল খান, ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা মিলন হাওলাদার, আল-আমিন হাওলাদার, সমীর সরকারসহ কমপক্ষে ২০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

অপরদিকে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল চাইতে গেলে উপজেলার ভুরঘাটা গ্রামের প্রভাবশালী আ’লীগ নেতা কামাল ফকির ও তার সহযোগীরা হামলা চালিয়ে আহত করে পল্লী বিদ্যুতের গৌরনদী জোনাল অফিসের এজিএম আনছার উদ্দিন, এনফোর্সমেন্ট কো-অডিনেটর জাকির হোসেন, সহকারি হিসাব রক্ষক জিয়াউল করিম, ওয়ারিং পরিদর্শক হাবিবুর রহমান ও লাইনম্যান ছালাউদ্দিন। এ ঘটনায় জাকির হোসেন বাদি হয়ে কামাল ফকির সহ ৯ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে উপজেলা যুবলীগ নেতা ও পৌর কাউন্সিলর বকতিয়ার হোসেন হাওলাদারের হামলায় গুরুতর জখম হন উপজেলা এলজিইডি বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাইনুল হক। এ ঘটনায় মাইনুল বাদি হয়ে পৌর কাউন্সিলর বকতিয়ারকে আসামি করে গৌরনদী থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »