আর্কাইভ

গৌরনদীতে বিয়ের প্রলোভনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রায়হান হাওলাদার (২৫) নামের এক যুবক একই গ্রামের এক মাদ্রাসার ছাত্রীকে (১৬) ধর্ষণ করেছে  বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে বরিশাল জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়ার জন্য আদালতে সোপর্দ করেছে। অপরদিকে আজ মঙ্গলবার বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।
 
পুলিশ ও ধর্ষিতা মাদ্রাসা ছাত্রী জানায়, গত ৩ বছর পূর্বে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে বসে উপজেলার খাঞ্জাপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী নুুর ইসলাম হাওলাদারের পুত্র রায়হান হাওলাদারের সাথে একই গ্রামের মাদ্রাসা ছাত্রী (১৬)’র প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর রায়হান ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্নস্থানে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর রায়হানের পরিবারের সদস্যরা রায়হানকে বিয়ের জন্য অন্যত্র পাত্রী দেখে। এ খবর জানতে পেরে রায়হান প্রেমিকাকে নিয়ে রবিবার সকালে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায়।

এদিকে মাদ্রাসার ছাত্রীকে না পেয়ে তার মা ইসমত আরা বাদি হয়ে রায়হান হাওলাদার, রায়হানের মা শাহনাজ বেগম ও চাচা নুর মোহাম্মদ হাওলাদারকে আসামি করে সোমবার বিকেলে গৌরনদী থানায় একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন।

মাদ্রাসা ছাত্রী আরো জানায়, রায়হান তাকে তার বান্ধবীর বাড়িতে রেখে কৌশলে সটকে পরে। রায়হান ফিরে না আসায় ওইদিন রাতেই মাদ্রাসা ছাত্রী  বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন শুরু করে।

গৌরনদী থানার ওসি আবুল কালাম জানান, অভিযোগ দায়েরের পর মাদ্রাসা ছাত্রীকে সোমবার রাতে প্রেমিকের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে বরিশালের ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে প্রেরন করা হলে তার ১৬৪ ধারায় জবান গ্রহন করা হয়। একইদিন তার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »