আর্কাইভ

উজিরপুরে ভন্ড ফকিরকে গণধোলাই

স্টাফ রিপোর্টার ॥  বরিশালের উজিরপুর উপজেলার পশ্চিম সাতলা গ্রামের এক ভন্ড ফকিরের রোষানলে সর্পদংশনের এক রোগীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসি ভন্ড ফকিরকে গণধোলাই দিয়েছে। এসময় জীবনে আর কোনদিন কবিরাজী করবেন না বলে মুচলেকা দিয়ে এক’শ বার কানধরে ওঠবস করে রক্ষা পেয়েছে প্রতারক ভন্ড ফকির শান্তি বৈদ্য (৪৫)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে।

 
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের হরলাল বৈদ্যর পুত্র ভন্ড কবিরাজ শান্তি বৈদ্য দীর্ঘদিন থেকে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে ঝাড়ফুঁক, বানটোনা, সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা দেয়ার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। গত ২৩ জুন পাশ্ববর্তী শিবপুর গ্রামের রাজ্জাক বাহাদুরের পুত্র সাগরকে (১১) সর্প দংশন করলে তার পরিবারের লোকজন ওই কবিরাজের কাছে নিয়ে আসে। তিনি প্রথমে অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষা করে সাগরকে সর্প দংশন করেনি বলে হাতের বাঁধন খুলে দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পথিমধ্যে সাগর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভন্ড ফকিরকে ধরে এনে ডগিরপাড় বাজারে বসে গণধোলাই দেয়। একপর্যায়ে শান্তি বৈদ্যর পরিবারের সদস্যদের অনুরোধে তাকে পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়নি। পরবর্তীতে শান্তি বৈদ্য জীবনে আর কোনদিন কবিরাজী করবেন না বলে মুচলেকা দিয়ে এক’শ বার কানধরে ওঠবস করে রক্ষা পান।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ বখতিয়ার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »