আর্কাইভ

গৌরনদীতে সরকার দলীয় ক্যাডারদের হামলায় যুবদল নেতাসহ ৮জন আহত ॥ গ্রেফতার-১

আহত উপজেলা যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক ও মাহিলাড়া ইউনিয়ন যুবদলের আহবায়ক কাজী জসিম জানান, গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে তার বাড়ির পার্শ্বের একটি সালিশ বৈঠকে উপস্থিতিকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি কালিয়া দমন গুহর পুত্র সরকার দলীয় ক্যাডার সলিল গুহ পিন্টুর সাথে তার বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জেরধরে পিন্টু ও তার সহযোগীরা পূর্ণরায় তার ওপর হামলা চালায়। এসময় জসিমের আত্মচিৎকারে তার পিতা আগৈলঝাড়া উপজেলা কৃষি অফিসের সহকারি ম্যানেজার কাজী মোশারফ হোসেন, ভাই ছাত্রদল নেতা কাজী আরিফ তার নানী লুৎফন নাহার এগিয়ে আসলে তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা তাদের কাছ থেকে নগদ অর্থ ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। হামলায় কাজী জসিম (৩০), কাজী মোশারফ (৫৬), কাজী আরিফ (২০), লুৎফন নাহার (৭০),  মাহিলাড়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সহসভাপতি মিরন গোমস্তা (২৫), যুবদল নেতা দেলোয়ার বেপারী (২৬), টিটু সিকদার (৩০), আনোয়ার হোসেন মাষ্টার (৫০) আহত হয়। আহতদের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে পিন্টুর সহযোগী ঝন্টু বেপারী চিকিৎসাধীন আরিফের ওপর পূর্ণরায় হামলা চালিয়ে হাসপাতাল ত্যাগের জন্য হুমকি প্রদর্শন করে। এ ঘটনায় পুলিশ হাসপাতাল থেকে ঝন্টু বেপারীকে গ্রেফতার করে। গুরুতর আহত প্রথম তিনজনকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে সলিল গুহ পিন্টু বলেন, সালিশ বৈঠকে প্রথমে আমার ওপর জসিম হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনার জেরধরে অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »