আর্কাইভ

উজিরপুরে জনতার বিক্ষোভ ॥ ইউএনও’র সাথে বাকবিতন্ডা

আমন্ত্রন না দেয়ায়  দু’দফা বিক্ষোভ করেছে স্থানীয় জনতা। এই ঘটনা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সাথে প্রকাশ্যে বাকবিতন্ডা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। জাসদ নেতা এডভোকেট আমির হোসেন জানান, নবনির্মিত হাসপাতাল বুধবার উদ্বোধন করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাসপাতাল নির্মানে স্থানীয় গন্যমান্য ও জমিদাতাদের আমন্ত্রন না দিয়ে আমন্ত্রনপত্র বিলি করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা স্বপন কুমার মিত্র। এ ঘটনায় স্থানীয়রা অনুষ্ঠান বর্জন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। বিকেলে জনতা হাসপাতালের সামনে এ ঘটনার প্রতিবাদে দু’দফা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। তখন আমন্ত্রনপত্র বিলির সময় স্থানীয় জনতা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা স্বপন কুমার মিত্রকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এ সময় তিনি জনতার কাছে ক্ষমা চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয় সিন্ধু তালুকদারের সাথে আলোচনার প্রস্তাব দেয়। এই সভায় আমন্ত্রন না দেয়ার ঘটনা নিয়ে স্থানীয় সুশীল সমাজের প্রতিনিধি শংকর মজুমদারের সাথে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয় সিন্ধু তালুকদারের প্রকাশ্যে বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বাদলের হস্তক্ষেপে উভয় পক্ষের পক্ষ থেকে সমঝোতায় মাইকিং করে উপজেলাবাসীকে দাওয়াত দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়সিন্ধু তালুকদার বলেন, আমন্ত্রন পত্রে শুধুমাত্র উদ্বোধকের নাম থাকায় এলাকাবাসির সাথে ভুল বোঝেবুঝি হয়েছে। এ নিয়ে ভুল-বোঝাবুঝির অবসানও হয়েছে। বাকবিতন্ডার বিষয়টি ভুল-বোঝাবোঝি হিসেবে অভিহিত করেন তিনি। উপজেলা চেয়াম্যান আবুল কালাম আজাদ ঘটনাটি দুঃখজনক অভিহিত করেন। উজিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার রায় বলেন, এ ঘটনা তাকে কেহ জানাননি। স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা স্বপন কুমার মিত্র বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানের সহযোগীতায় ভুলবোঝাবুঝির সমাধান হয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »