আর্কাইভ

বরিশালে বিএনপির মিছিলে পুলিশী বেপরোয়া লাঠিচার্জ

পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ারও ঘটনা ঘটেছে। পুলিশী লাঠিচার্জে বিসিসির সাবেক মেয়র বিএনপির কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী সম্পাদক আহসান হাবীব কামালসহ ১৫ নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সাবেক মেয়র কামালকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, দুপুর সাড়ে ১২টায় বরিশাল জেলা ও মহানগর বিএনপির সদর রোডস্থ কার্যলয়ের সামনে থেকে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আহসান হাবীব কামাল সমর্থকরা হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করার প্রস্তুতি নেয়। ওই সময় পুলিশ তাদের উপর লাঠিচার্জ করে মিছিটি ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে। এরপর নেতা-কর্মীরা বরিশাল আবদুর রব সেরনিয়াবাদ আইনজীবী সমিতির সামনে জড়ো হয়ে সাবেক মেয়র আহসান হাবীব কামালের নেতৃত্বে নগরীতে মিছিল শুরু করে। তাৎক্ষনিক পুলিশ মিছিলের ওপর লাঠিচার্জ করে। পুলিশী ব্যাপক লাঠিচার্জে আহসান হাবীব কামালের পা ভেঙ্গে গেছে। আহসান হাবীব আহত হওয়ায় নেতা-কর্মীরা পুলিশের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। বিক্ষুদ্ধ কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে। লাঠিচার্জে এছাড়া আহত হয়েছে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম রাজন, বিএনপি নেত্রী শামীমা আকবর, মোমিন শিকদার ও অ্যাড মহসিন মন্টু।

বিএনপি নেতা অ্যাড.মহসিন মন্টু বলেন, আহসান হাবীব কামালকে আশংকাজনক অবস্থায় শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ তাকে বেদম পিটিয়েছে। পুলিশী হামলায় মাটিতে শুয়ে পরার পরেও তাকে ন্যাক্কারজনকভাবে পিটানো হয়েছে। তার বাম পা ভেঙ্গে গেছে। কোমরেও আঘাত পেয়েছে।

এ ব্যাপারে কোতয়ালী মডেল থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পূর্বানুমতি না নেওয়ায় আইনশৃংখলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ কর্মসুচী পালনে বাঁধা দিয়েছে। পুলিশের বাঁধা না মানায় মৃদ্যু লাঠিচার্জ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »