আর্কাইভ

শাবিতে আট বছরের কমিটি বিহীন ছাত্রলীগ

  নতুন কমিটি শীঘ্র হতে যাচ্ছে এমন সংবাদে ক্যাম্পাসের নেতাকর্মীদের মধ্যে আশার আলো সঞ্চার হয়েছে। দীর্ঘ প্রায় ৮বছর পর আসন্ন কমিটিতে ঠাঁই পেতে ছাত্রলীগের বিভিন্ন গ্র“পের একাধিক নেতৃবৃন্দ সিলেটের আঞ্চলিক নেতা থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। গত বছরের ১৮ জুলাই শাবি শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার পর থেকেই ছাত্রলীগ নেতারা আসন্ন কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদ দখল করতে নতুন উদ্যেমে মাঠে নামে। এদিকে শাবি ছাত্রলীগের কমিটি গঠন নিয়ে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ সুত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালের ২৭ মার্চ গঠন করা হয় ছাত্রলীগের সর্বশেষ কমিটি। আলী আশরাফুল কবীরকে সভাপতি ও মাছুম বিল্ল¬াহ চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট সেই কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে আজ থেকে প্রায় সাত বছর পূর্বে। দীর্ঘ ৮ বছর কমিটি না থাকায় সংগঠনটি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে। এ সময় নেতাকর্মীরা নানা গ্র“পে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। নিজ নিজ নামে গ্র“প তৈরি করে ক্যাম্পাসে অবস্থান তৈরিতে মরিয়া হয়ে উঠে পড়ে লেগেছে। বর্তমানে ছাত্রলীগে রয়েছে হাফ ডজনেরও বেশি গ্র“প। এর মধ্যে আসাদ-মিঠু গ্র“প, নাঈম-মঞ্জু গ্র“প, আতিক-রাশে-সৈকত গ্র“প, হাফিজ- সামিউল গ্র“প, মুকিত-জুয়েল গ্র“প ও সুইট গ্র“প, প্রজন্ম-৭১ গ্র“প অন্যতম।

এদিকে গত ২১মার্চ প্রায় ২শতাধিক শিক্ষার্থী সভাপতি প্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা সামসুজ্জামান চৌধূরী সুমনের বিরুদ্ধে যৌন কেলেংকারীর অভিযোগ এনে স্মারকলিপি দিলে তাকে আতিক-রাশেদ-সৈকত গ্র“প থেকে বহিষ্কার করা হয়। এছাড়াও  তাকে গতবছর ৩ অক্টোবর মাস্টার্স নৃবিজ্ঞানের একটি কোর্সে অসাদুপায় অবলম্বনের জন্য শোকজ নোটিশ দেয়া হয়। আরেক সভাপতি প্রার্থী মাহিবুল হাসান মুকিতের বিরুদ্ধে নকলের দায়ে ১ সেমিস্টার বহিস্কারের অভিযোগ রয়েছে।

শাবি ছাত্রলীগের পূর্বের  কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণার পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতারা পদ দখল নিতে লবিং গ্র“পিং শুরু করেছেন বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে সভাপতি পদের জন্য লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন ছাত্রলীগ নেতা নাঈম হাসান, আসাদুজ্জামান আসাদ, আতিকুর রহমান আতিক, কামরুজ্জামান সুইট, মাহিবুল হাসান মুকিত। অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য তৎপরতা চালাচ্ছেন সাইদুর রহমান ভূঁইয়া মিঠু, রবিউল ইসলাম জুয়েল, শহীদুল্লাহ আল মারুফ, আবদুর রশিদ খান রাশেদ, সৈকত হালদার,   হাফিজুর রহমান হাফিজ প্রমুখ।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান মিঠু, যোগ্য নেতাদের মধ্য থেকে কমিটি দেওয়ার আহ্বান জানান। অপরদিকে সভাপতি প্রার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ, নাঈম হাসান বলেন,  জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের জন্য শাবি ছাত্রলীগ নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। একই সাথে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের দুঃশাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল এবং আন্দোলন সংগ্রামে যারা নেতৃত্ব দিয়েছে এরকম যোগ্য নেতৃত্ব দেখে কমিটি দিলে শাবি ছাত্রলীগ ও একটি মডেল নেতৃত্ব উপহার দিবে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »