আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় ইউপি নির্বাচনে ভাতা বিতরণে অনিয়ম

আপ্যায়ন ও যাতায়ত ভাতা বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। একই উপজেলায় দুই রিটানিং অফিসারের দুই নিয়মে ভাতা বিতরণ। এ নিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। ভাতা প্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসারদের সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে সদস্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনে উপজেলা পশু সম্পদ কর্মকর্তা মো. বখতিয়ার উদ্দিনকে বাগধা, গৈলা ও রতœপুর ইউনিয়নে রিটানিং অফিসারের দায়িত্বে ছিলেন। ওই ৩টি ইউনিয়নে ২৯ জন প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং ১৮৯, পোলিং এজেন্ট ৩৮০ জন সহ মোট ৫৯৮ জন নির্বাচনের দায়িত্বে ছিলেন। এদের মধ্যে পোলিং এজেন্টদের ৩শ টাকা, প্রিজাইডিং ও সহকারী প্রিজাইডিং ৩শ ৫০টাকা করে যাতায়াত ও আপ্যায়ন ভাতা গত বুধবার থেকে বিতরণ শুরু করা হয়।

রিটানিং অফিসার বখতিয়ার উদ্দিন নিয়ম বহিঃভূত ভাবে ৫শ ৯৮ জনের কাছ থেকে ৩০টাকা করে প্রায় ১৮হাজার টাকা অবৈধভাবে কেটে রাখছেন বলে ভাতা প্রাপ্তরা অভিযোগ করেন।

বাকাল ও রাজিহার ইউনিয়নে রিটানিং অফিসারের দায়িত্বে ছিলেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বদিউজ্জামান। ওই দুটি ইউনিয়নে প্রিজাডিং ১৮ জন, সহকারী প্রিজাইডিং ১শ ২১ জন ও পোলিং এজেন্ট ২৪২ জন সহ মোট ৩৮১ জন। ভাতা বিতরণের সময় তাদের কাছ থেকে ভ্যাট ও রেভিনিউ বাবদ ১৫ টাকা করে রাখা হয়। একই উপজেলায় দুই রিটানিং অফিসার দু’নিয়মে ভাতা বিতরণে করায় নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করা কর্মকর্তাদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে ৩ ইউনিয়নের দায়িত্ব প্রাপ্ত রিটানিং অফিসার বখতিয়ার উদ্দিন জানান, ভ্যাট ও  রেভিনিউ বাবদ ৩০ টাকা করে কেটে রাখা হয়েছে। অপর দিকে ২ ইউনিয়নে দায়িত্বে থাকা বদিউজ্জামান জানান, সরকারী পরিপত্র অনুসারে ৬% ভ্যাট ও রেভিনিউ বাবদ ১৫ টাকা রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »