আর্কাইভ

গোল্ডেন জিপিএ-৫ ও জিপিএ-৫ পেয়ে দরিদ্র পরিবারের ২ মেধাবী ছাত্র

দরিদ্র পরিবারের ২ ছাত্র। দরিদ্রতাও হার মানাতে পানেনি প্রশান্ত বাড়ৈ ও উজ্জ্বল ওঝাকে। আগৈলঝাড়া উপজেলার ভেগাই হালদার পাবলিক একাডেমীর বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে জলিরপাড় গ্রামের  প্রফুল্ল বাড়ৈর ছেলে প্রশান্ত বাড়ৈ। প্রশান্ত দৈনিক ৫-৬ ঘন্টা পড়াশুনা করত। পড়াশুনার মাঝে পিতাকে পারিবারিক কাজে সহযোগিতা করত। পিতা প্রফুল্ল বাড়ৈ একজন কাঠ মিস্ত্রী। স্বল্প আয়ে সংসার চালিয়ে মেধাবী তিন ছেলের লেখাপড়ার খরচ জোগাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ সাফল্যের জন্য তার পিতা, মাতা, ভাই স্কুল শিক্ষক পুলিন বাড়ৈর কাছে সে কৃতজ্ঞ। প্রশান্তপড়াশুনা করে ভবিষ্যতে একজন ডাক্তার হতে চায়। একই স্কুল থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে উজ্জ্বল ওঝা। ২ ভাই ১ বোনের মধ্যে সে মেঝ। দৈনিক ৫-৬ ঘন্টার ফাকে পিতাকে বিকেলে চায়ের দোকানে চা বিক্রিতে সহযোগীতা করত। সে ভবিষ্যতে পড়াশুনা করে ডাক্তার হয়ে দেশের সেবা করতে চায়। উভয়ই বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছিল। উজ্জ্বলকে পড়াশুনা করতে সার্বিক সহযোগীতা করেছেন শিক্ষক পুলিন বাড়ৈ ও মা লক্ষ্মী রানী বাড়ৈ। উভয় পরিবারেই দরিদ্র পরিবার।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »