আর্কাইভ

আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ভবন নির্মাণ – খুঁটির জোর কোথায়?

Againjhara পাকা ভবন নির্মাণ সংক্রান্ত সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ায় বহু অপকর্মের হোতা জাকির ক্ষতিগ্রস্থ চাঁন মিয়া ও তার বড় ছেলে বাচ্চুসহ পরিবারকে প্রাণনাশ এবং মামলা তুলে আনার জন্য অব্যাহত হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ও স্থানীয় প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করে তারা এ তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে সে ও তার পরিবার। আদালতের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ওই দিনমজুর বারবার পুলিশের কাছে ধর্ণা দিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে, বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের ভদ্রপাড়া গ্রামের দিনমজুর চাঁন মিয়ার পৈতৃক সম্পত্তিতে একই বাড়ির প্রভাবশালী মোবারক হোসেন বেপারীর ছেলে জাকির বেপারী জবর দখল করে স্থায়ী পাকা ভবন নির্মাণ করছে। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বর ও গণ্যমান্য ব্যক্তিরা মিমাংসার উদ্যোগ নিলেও তা সম্পন্ন না হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ চাঁন মিয়া বরিশাল বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করলে তার প্রেক্ষিতে ওই বিরোধীয় জমিতে কোন ধরণের কাজ না করার জন্য আদালত স্থিতাবস্থা জারি করে তা কার্যকর করার জন্য আগৈলঝাড়া থানায় নির্দেশ দেন। যার নং-এমপি ১০১/১১। গত ১৮ এপ্রিল বিজ্ঞ আদালত পরবর্তী তারিখ পর্যন্ত স্থিতাবস্থা জারি করে ওই তারিখে ১০২ নং স্মারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আগৈলঝাড়া থানায় প্রেরণ করেন। গত ২০ এপ্রিল থানা পুলিশ আদালতের নির্দেশ সংবলিত একটি নোটিশ বাদী ও বিবাদীকে দেয়। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে পুলিশকে ম্যানেজ করে বিরোধীয় জমিতে জাকির বেপারী ও তার পরিবার ভবন নির্মাণ অব্যাহত রেখেছে। পুলিশ অজ্ঞাতকারণে কাজ বন্ধ করার কোন উদ্যোগ নিচ্ছেনা।

স্থানীয় প্রভাবশালীরাও এব্যাপারে চরম উদাসীনতার পরিচয় দিচ্ছে বলে জানা গেছে। এঘটনা পত্রিকায় প্রকাশিত হলে জাকির ও তার লোক জন চাঁন মিয়া ও তার পরিবারকে প্রাণনাশ এবং মামলা তুলে আনার জন্য অব্যাহত হুমকি দিচ্ছে।

উল্লেখ্য, উক্ত জাকির চেক জালিয়াতি, রাজনৈতিক হামলা, প্রতারণা, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে অতীতে ও বর্তমানে লিপ্ত থাকলেও টাকার জোরে রেহাই পেয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি এসআই জসীমের কাছে  সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি জানান, আদালতের কাগজ পেয়ে নোটিশ দিয়েছি। বিবাদী আদালতের নির্দেশ পেয়ে কাজ বন্ধ না করলে পুলিশ কি করবে?

আরও পড়ুন

Back to top button