আর্কাইভ

আলোকিত ইউনিয়ন গঠন হবে প্রধান কাজ-জাহাঙ্গির হোসেন রাঢ়ী

সুখে দুখে জনগনের পাশে থাকতে চান এবং আবারো নির্বাচিত হয়ে সকলকে নিয়ে আলোকিত ইউনিয়ন গঠন করতে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি রমজানপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করছেন। তিনি মুখোমুখি হয়েছিলেন কালকিনি প্রতিনিধি মোঃ বিল্লাল হোসেন এর সাথে। তিনি জানিয়েছেন বিগত সময়ের উন্নয়নের কথা। অবহেলিত রমজানপুর ইউনিয়নের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার আশা প্রকাশ করেছেন।

জাহাঙ্গির হোসেন রাঢ়ী ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য হিসেবে ২৬বছর নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর সাধারণ মানুষের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাতে ২০০৩সালে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। তিনি চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নির্মাণ, হামেদখার হাট থেকে নতুন টরকী পর্যন্ত সড়ক, ২৮টি নতুন কাঁচা রাস্তা, ১২ থেকে ১৪টি কালভার্ট, ২৫থেকে ৩০টি পাইপ কালভার্ট নির্মাণ ও শিক্ষার গুনগত মানোন্নয়নে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছেন। স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটিয়ে দুষন মুক্ত পরিবেশ তৈরী করেছেন। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক পর্যায়ে রেখেছেন। এলাকার মসজিদ, মাদ্রাসাসহ উন্নয়ন করা হয়েছে ব্যাপক। ভিজিএফ, ভিজিডি, বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা  ও প্রতিবন্ধীভাতা সুষ্ঠুভাবে স্বচ্ছতার সাথে বিতরণ করেছেন। সুঃখে দুঃখে পাশে দাড়িয়েছেন সাধারণ মানুষের। দুর্যোগকালীন সময়ে ছুটে এসেছেন দরিদ্র অবহেলিত মানুষের পাশে। চেষ্টা করেছেন সাহায্য সহযোগিতা করে তাদের মুখে হাসি ফোটাতে।

জাহাঙ্গির হোসেন রাঢ়ী এ প্রতিবেদক কে বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হতে পারলে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবেন। সন্ত্রাস, দূর্নীতি মুক্ত রমজানপুর গড়ে তুলবেন। কৃষি নির্ভর এ পশ্চাৎপদ জনপদকে শস্য ভান্ডার হিসেবে গড়ে তুলে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখার অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন। স্বাস্থ্য ও শিক্ষা সেবার উন্নয়ন ঘটিয়ে অবহেলিত মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাবেন। আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে তুলে এলাকাকে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী করে তুলবেন।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষা বঞ্চিত মানুষের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়ানোর উদ্যোগ নিব। সকলের সহযোগীতায় আলোকিত ইউনিয়ন গঠন হবে আমার প্রধান কাজ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »