আর্কাইভ

বাঘে ধরলে বাঘে ছাড়ে, শেখ হাসিনা ধরলে ছাড়ে না

হলে গিয়ে বাংলা ছবি দেখি না অনেকদিন। তাই বলে ঢাকার ফিল্ম পাড়ায় কোন ছবি মুক্তি পাচ্ছে তা জানিনা বললে মিথ্যা বলা হবে। চাইলেই কি এড়ানো যায় অদ্ভুত নাম সহ বিশাল সব বিলবোর্ড,? স্বামী কেন আসামী, কাজের বুয়া রহিমা, খাইছে আমারে, রসের বাইদ্যানি, এখনি সময় (The Moment), এ জাতীয় টাইটেল সাথে অঞ্জু ঘোষের মত বিশ্ব সুন্দরীদের খানিক মাংস প্রদর্শন, অনেক কিছুর মত এগুলোর সাথেই যে বেড়ে উঠি আমরা। প্রথমে চমকে উঠেছিলাম টাইটেলটা পড়ে, ‘বাঘে ধরলে বাঘে ছাড়ে, কিন্তু শেখ হাসিনা ধরলে ছাড়ে না‘। বাংলা ছায়াছবির জন্যে একটু বেশিই মনে হয়েছিল, বিশেষ করে শেখ হাসিনা নামের সাথে আমাদের শক্তিধর প্রধানমন্ত্রীর মিল থাকার কারণে। রহস্যটা খোলাসা করতে খুব একটা কষ্ট করতে হলনা। পরিচিত এক ব্লগার রেফারেন্স সহ অন্য এক লেখকের একটা লেখা পাঠকদের পড়তে দিয়ে উপকার করেছেন। সেখানেই পাওয়া গেল আসল ঘটনা। ছবি-ফবি আসলে কিছুনা, কথা গুলো বলেছেন রাজনীতির নব্য নরসুন্দর, সর্বজনাব সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। গত ২৪শে মে রাজধানী ঢাকার এক অনুষ্ঠানে ডক্টর মোহম্মদ ইউনূসকে নিয়ে ব্যঙ্গ করতে গিয়ে এমনটাই বলেছেন নিজ নেত্রীর চরিত্র নিয়ে, ‘বাঘে ধরলে বাঘে ছাড়ে, কিন্তু শেখ হাসিনা ধরলে ছাড়ে না, ছাড়ছে ইউনূস মিয়ারে?‘

অন্যায় কিছু বলেননি দেশিয় শাসনতন্ত্রের এই হুজুরে আলা, আসলেই ছাড়া হয়নি ইউনূস মিয়ারে। তবে বাবুর কথাটা অসম্পূর্ণ থেকে যাবে যদি এর সাথে আরও কিছু যোগ না করা হয়। 'বাঘে ধরলে বাঘে ছাড়ে (একজনকে) কিন্তু হাসিনায় ধরলে ১৭ কোটিরেও ছাড়ে না'। গোটা দেশকে ধরছেন বাবুর মনিব শেখ হাসিনা। চাইলে এ নিয়েও উল্লাস করতে পারেন রাজনীতির এই সেবাদাস। বাবু বোধহয় ভুলে গেছেন রাজনীতিতে শেষ বলে কিছু নেই। মুরগি মোসাল্লাম ভরা সভা-সেমিনার হতে নাজিম উদ্দিন রোডের মোটা চালের ভাতও দেশিয় রাজনীতির অংশ। এই চাল যখন ধরে বাবু কেন, বাবুর মনিবকেও ছাড়ে না। বাংলা/ইংরেজীতে একটা কথা আছে, হাসে সে, যে হাসে সবার শেষে। আমরাও অপেক্ষায় রইলাম শেষ হাসি দেখার জন্যে। শেখ মুজিবের দম্ভ, জিয়াউর রহমানের খুন, এরশাদের কবিতা আর খালেদা জিয়ার অবজ্ঞা আর উন্নাসিকতার স্বাক্ষী এই আমরাই। উপসংহার বোধহয় একটাই, পাপ পাপকে ছাড়ে, কিন্তু বাপকে ছাড়ে না।

শুনছি সুরঞ্জিত বাবুর ইউনূস মিয়ার উপর ছবি বানাচ্ছে ইতালীয় পরিচালক মার্কো আমেন্তা। সার্গিও দোনাত্তির আর্ন্তজাতিক বেস্টসেলার অবলম্বনে নির্মীয়মান এ ছবির নাম হবে ‘ব্যাংকার ট্যু দা পুওর’। ইউনূস মিয়ার নাম ভূমিকায় অভিনয় করবেন বলিউড তারকা ইরফান খান। দেখার বিষয় নেত্রী তৈলমর্দকদের কে প্রথম এগিয়ে আসনে ‘বাঘে ধরলে বাঘে ছাড়ে, শেখ হাসিনা ধরলে ছাড়ে না‘ নামের বাংলা ছবি বানাতে। চাইলে রেকমেন্ড করতে পারি নেত্রীর নাম ভূমিকায় কে অভিনয় করবে, গুড ওলড অঞ্জু ঘোষ (if alive)।

সূত্রঃ http://www.dailynayadiganta.com/fullnews.asp?News_ID=282461&sec=6

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »