আর্কাইভ

তিন দিনের ভারী বর্ষনে বরিশালে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

৫ হাজার ৪৮৮ হেক্টর জমির আবাদী ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। এ কারনে চলতি মৌসুমে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় আউশ, আমন, পেপে, পান, শাক-সবজির চাষাবাদ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হতে পারে জানিয়েছে বরিশাল আঞ্চলিক কৃষি অধিদপ্তর।

গত ১৬ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত টানা ৩ দিনের ভারী বর্ষণে নদীর পানি ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়ে ৩৭ হাজার ২৩৭ হেক্টর জমির মধ্যে ৫ হাজার ৪৮৮ হেক্টর জমির ফসল তলিয়ে যায়। এর মধ্যে সদর উপজেলার ৫ হাজার ৭২০ হেক্টর জমির ২৫১ হেক্টর তলিয়ে গেছে। এতে আউশ ২০০ হেক্টর, আমন বীজতলা ১ হেক্টর এবং শাক-সবজির আবাদকৃত জমি রয়েছে ৫০ হেক্টর। 

বাবুগঞ্জ উপজেলার ১ হাজার ২০২ হেক্টর জমির ১৬০ হেক্টর তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে আউশ ১০০ হেক্টর, আমন বীজতলা ৫০ শতাংশ এবং শাক-সবজির আবাদকৃত জমি রয়েছে ৬০ হেক্টর। 

উজিরপুর উপজেলার ৭২৭ হেক্টর জমির ১০৬ হেক্টর ১২৫ শতাংশ তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে আউশ ৬০ হেক্টর, আমন বীজতলা ১২৫ শতাংশ এবং শাক-সবজির রয়েছে ৪৬ হেক্টর। 

বাকেরগঞ্জ উপজেলার  ১৭ হাজার ২৬৩ হেক্টর জমির ৪ হাজার ৯০ হেক্টর ১২৫ শতাংশ তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে আউশ ৪ হাজার  হেক্টর, আমন বীজতলা ১২৫ শতাংশ এবং শাক-সবজির আবাদকৃত জমি রয়েছে ৯০ হেক্টর। 

গৌরনদী উপজেলার ৮১৩ হাজার হেক্টর জমির ৫২ হেক্টর তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে আউশ ২০ হেক্টর, আমন বীজতলা ২৫ শতাংশ এবং শাক-সবজির আবাদকৃত জমি রয়েছে ৩২ হেক্টর। 

আগৈলঝাড়া উপজেলার ১ হাজার ২০২ হেক্টর জমির ১৬০ হেক্টর তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে আউশ ১০০ হেক্টর, আমন বীজতলা ৫০ শতাংশ এবং শাক-সবজির আবাদকৃত জমি রয়েছে ৬০ হেক্টর।

এছাড়াও বরিশাল বিভাগের ৬টি জেলার ৪০ উপজেলার প্রায় ৪৯ হাজার ৫শ’ ৯১ হেক্টর ১২৩ শতংশ জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে পিরোজপুরে জেলায় ২ হাজার ২০৯ হেক্টর, ঝালকাঠী জেলায় ১৭ হাজার ৭৪১ হেক্টর, পটুয়াখালী জেলায় ২৩ হাজার ২২ হেক্টর, বরগুনা জেলায় ৪৭০ হেক্টর এবং গোপালগঞ্জ জেলায় ৬৬৫ হেক্টর ফসলি জমি রয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button