আর্কাইভ

২১টি ইউনিয়ন পরিষদে আজও তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু হয়নি

মতো গত ১১ নভেম্বর বরিশালের গৌরনদী, আগৈলঝাড়া ও উজিরপুর উপজেলার ২১টি ইউনিয়নে তথ্য সেবা কেন্দ্র (ইউ আই এস সি)  উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনের আগেই ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে উপজেলা পরিষদের ব্যাবস্থপনায় একটি করে কম্পিউটর দেওয়া হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন ইউনিয়নই তথ্যসেবার কার্যক্রম শুরু হয়নি। স্থানীয়রা জানান, তথ্যসেবা কেন্দ্র সম্পর্কে তারা  কিছুই কিছুই জানেন না। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদগুলো ঘুরে সর্বত্রই দেখা যায় একই চিত্র।

সরেজমিনে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শন করে সংশ্লিষ্ট লোকজন ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বরিশালের গৌরনদীর ৭ টি, আগৈলঝাড়া ৫টি ও উজিরপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদে এখনো তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু হয়নি। ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের একটি কক্ষে ইউআই এসসির কার্যক্রমের জন্য একটি কক্ষে তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু করার নির্দেশ দেয়া হয়। এখানে জনসাধারনকে ইন্টারনেট, অল্প করচে কম্পোজ, প্রিন্টিং, ছবি তোলা, ও স্ক্যানিংয়ের সুবিধা দেয়া হবে। এ জন্য উদ্বোধনের আগেই উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে একজন পুরুষ ও একজন নারী পরিচালক (অপারেটর) নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে বরিশাল নিয়ে ১০ দিনের প্রশিক্ষন দেয়া  হয়েছে। উপজেলা পরিষদের ব্যাবস্থপনায় স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে সরবারহ করা হয়েছে কম্পিউটর, প্রিন্টার, ও ইন্টারনেট মডেম। উপজেলা পর্যায়ে ইউআইএসসির তদারকিতে রয়েছেন স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারগন। তারা জানান, প্রতিটি ইউনিয়নের স্থায়ী বাসিন্দা দুজন বেকার নারী পুরুষকে পরিচালক পদে (অপারেটর) নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তারা সাধারন মানুষকে তথ্যসেবা প্রদান করে ওই আয় দিয়ে স্বাবলম্বী হবেন। পাশাপাশি প্রত্যান্ত পল্লীর বাসিন্দারা হাতের কাছে অত্যাধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সেবা পাবেন। সেবা দিয়ে পরিচালকরা আয় করবেন। সরকারীভাবে তাদের কোন ভাতা দেয়া হবে না। গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, গৌরনদী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে কম্পিউটর মডেম, হেডফোনসহ যাবতীয় সরঞ্জাম ক্রয় করে তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু করা হয়।

গৌরনদী উপজেলার শরীকল ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ রফিকুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি একটি তালাবদ্ব কক্ষ দেখিয়ে বলেন, ওটাই তথ্য সেবা কেন্দ্র। রুমটিতে কি কি আছে দেখতে চাইলে তিনি বলেন,  এখন আমার কাছে চাবি নেই। এ সময় ওখানে উপস্থিত স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনসহ অনেকেই বলেন, এ ইউনিয়নে কোন তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু হয়নি। শরীকল তথ্যসেবা কেন্দ্রের পরিচালক মোঃ রফিকুল ইসলাম-২ ও নীরু খানম এ প্রসংঙ্গে বলেন, নামে মাত্র নিয়োগ পেয়েছি কিন্তু কোন কাজ পাইনি। সাধারন মানুষকে কোন সেবা দিতে পারিনি। শরীকল ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন মিলন তথ্য সেবা চালু না হওয়া প্রসংগে বলেন, খুব শীঘ্রই চালু করা হবে।

চাঁদশী ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে কোন তথ্য কেন্দ্র দেখা যায়নি। নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান কৃঞ্চকান্ত দের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পরিষদে চালু নেই তবে অন্যস্থানে রেখে সেবা প্রদান করা হয়। খোজ নিয়ে জানা গেছে , চাদশী ইউনিয়নের কোথাও তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু হয়নি। গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নে তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু করা হলেও পূর্বের চেয়ারম্যান দায়িত্ব হস্থান্তরের সময় মরডেমসহ আনুসাঙ্গিক মালামাল না দেয়ায় বর্তমানে তথ্য সেবা কেন্দ্র বন্ধ রয়েছে।

উজিরপুর উপজেলার জল্লা ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে, কোন তথ্য সেবা কেন্দ্র দেখা যায়নি। স্থানীয় লোকজনের কাছে এ সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন এটা আবার কি বিষয়। এ বিষয়ে আমাদেরকে কিছুই অবহিত করা হয়নি। জল্লা গ্রামের গৌড়াঙ্গ বাড়ে, বিপুল দাস, মোঃ করিম হাওলাদারসহ অনেকেই বলেন, মোগো তো কিছুই কয় নাই, এইয়া দিয়া কি করে, কোন কামে লাগে। জল্লার ইউপি চেয়ারম্যান উর্মিলা বাড়ে জানান, ভবনের অভাবে তার এখানে তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু করা যায়নি। তবে দুইজন পরিচালক নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

আগৈলঝাড়ারা  উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নে গিয়ে দেখা যায় সেখানে তথ সেবা কেন্দ্র চালু করা হয়নি। রাজিহারের ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইলিয়াস তালুদার গৌরনদীর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সিদ্দিকুর রহমান আকন, সৈকত গুহ পিকলুসহ অনেকেই জানান, তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু করতে হলে  বৈদ্যুতিক সমস্যার সমাধান করতে হবে। তাছাড়া সেবা কেন্দ্রের পরিচালকদের চাকুরী সরকারী করতে হবে। যে সকল পরিচালকদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে  স্বেচ্ছা শ্রমে তারা শেষ পর্যন্ত চাকুরী করে কিনা তা সন্দেহ আছে। কারন ওই কাজ করে পরিবার পরিজন নিয়ে চলা যাবে না। কোথায়ও তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু না হওয়া প্রসংগে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সকল পরিষদে একযোগেই তথ্যসেবা কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়। ইউপি চেয়ারম্যানদের তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু করার জন্য বার বার তাগিদ দেয়া হচ্ছে।

গত মে মাসের সমন্বয় সভায় বিষয়টি নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানদের জোর তাগিদ দেয়া হয়েছে। উজিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয় সিন্ধু তালুকদার এ প্রসংগে বলেন, উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে প্রতিটি ইউনিয়নে কম্পিউটর, মডেম, প্রিন্টার, স্ক্যানার ও বৈদ্যুতিক জেনারেটরসহ সব ধরনের সরঞ্জাম সরবারহ করা হয়েছে। তথ্যসেবা চালু না থাকা প্রসংঙ্গে তিনি বলেন, আমার জানামতে কিছু জায়গায় ভালই চলছে। তাছাড়া নেট সমস্যা জনিত কারনে বন্ধ থাকতে পারে।

আগৈলঝাড়া নির্বাহী অফিসার দীপংকর বিশ্বাসের কাছে তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু না হওয়া প্রসংঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদ থেকে তথ্যসেবার যাবতীয় উপকরন সরবারহ করা হয়েছে। নব নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যানগন তথ্য সেবা কেন্দ্র চালু করে ডিজিটল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্থবায়ন সরকারকে সহযোগীতা করা উচিত।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button