আর্কাইভ

গৌরনদী কলেজে দু’দল ছাত্রের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত

কেন্দ্র করে গতকাল বুধবার দুপুরে একাদশ শ্রেনীর দু’দল ছাত্রের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে উভয় পক্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

আহত শিক্ষার্থী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা, শ্রেনী কক্ষের সামনের বেঞ্চে বসা নিয়ে পূর্ব বিরোধ ও খেলার মাঠের আধিপত্য নিয়ে গ্র“পিংয়ের জের ধরে গতকাল বুধবার দুপুর ১২ টার দিকে একাদশ শ্রেনীর ছাত্র মোঃ সাদ্দাম ও মামুনের মধ্যে কলেজ ক্যাম্পাসে বাকবিতন্ডা বাঁধে একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরপর উভয়ের সমর্থকরা কলেজ ক্যাম্পাসে জড়ো হয়ে শক্তি প্রদর্শনের জন্য মহড়া দেয়। পরবর্তীতে দু’গ্র“প মুখোমুখি হলে উভয় গ্র“প ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় লিপ্ত হয়। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার একপর্যায়ে উভয় গ্র“পের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে সাদ্দাম, মামুন, নাঈম, মেহেদী, সাজনসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। খবর পেয়ে গৌরনদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। কলেজ উপাধ্যক্ষ মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, সামনের বেঞ্চে বসা নিয়ে এর আগেও ওই দুই ছাত্রের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছিল। পূর্ব বিরোধ এবং খেলার মাঠ দখল নিয়ে বুধবার দুপুরে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। গৌরনদী থানার এস.আই অসীম কুমার শিকদার জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে তাদের একটি দল সেখানে গিয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করেন। এ ঘটনায় কোন পক্ষই থানায় অভিযোগ কেরেনি। তবে অভিযোগ পেলে আইন গত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। কলেজ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জুবায়েরুল ইসলাম সান্টু ভূইয়া জানান, কলেজ ছাত্রলীগের মধ্যে কোন বিরোধ নেই। আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কোন কর্মীর মধ্যে কিছু হয়নি। খেলার মাঠ দখল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সামান্য একটু উত্তেজনা হয়েছিল কিন্তু তা পরবর্তীতে সমাধান করে দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button