আর্কাইভ

সেনা সদস্যের বসত ঘরে দুর্ধর্ষ চুরি

মিয়ারচর গ্রামের এক সেনা সদস্যের ঘরে সিঁদ কেটে দুর্ধর্ষ চুরি সংঠিত হয়েছে। শুক্রবার ভোরে এলাকাবাসি রাজিব প্যাদা নামের এক চোরকে আটক করে গনধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের সেনা সদস্য আব্দুল খালেক আকন চট্রগ্রাম সেনানিবাসের কর্মস্থল থেকে ছুটিতে বৃহস্পতিবার সকালে নিজ বাড়িতে আসেন। ওইদিন রাতে সংঘবদ্ধ চোরেরা তার বসত ঘরে সিঁদ কেটে গৃহে প্রবেশ করে। চোরেরা ৩ ভরি স্বর্নালংকার, নগদ ২৬ হাজার টাকা, মুল্যবান মালামালসহ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়। চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় চোরের দল ওই গৃহে একটি বড় টর্স লাইট ফেলে রেখে যায়। শুক্রবার সকালে ওই টর্স লাইটের সুত্র ধরে স্থানীয়রা চার সদস্যের চোরের দলকে সনাক্ত করে রাজিব প্যাদা নামের এক চোরকে আটক করে গনধোলাই দেয়। পরবর্তীতে তাকে (রাজিবকে) সরিকল পুশিশ তদন্ত কেন্দ্রে সোপর্দ করা হয়। এ সময় রাজিবের দেয়া স্বীকারোক্তি মতে, তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী খালের পাড়ে লুকানো খালি ট্রাংকটি এলাকাবাসি উদ্ধার করলেও চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার করতে পারেননি। এ ঘটনায় আটক হওয়া রাজিব প্যাদা (২২) ও তার অপর তিন পলাতক সহযোগী মনির বয়াতী (২২), হেলাল বয়াতী (২৫) ও কাইউম বয়াতীকে (২০) আসামি করে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »