আর্কাইভ

আলীকদমে হারিয়ে যাচ্ছে পান চাষ

সম্ভাবনাময়ী পান চাষের ঐতিহ্য হারিয়ে যাচ্ছে। প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা ও দেখভালের অভাবে ঐতিহ্যবাহী পান চাষ থেকে সরে আসতে শুরু করেছেন পান চাষীরা। এক সময় বিচ্ছিন্নভাবে বিশাল এলাকা জুড়ে পান চাষ দেখা গেলেও এখন আর নেই। পান চাষীরা জানান, দু’দশক আগে আলীকদমের বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ী ঢালু জমিতে প্রচুর পান চাষ হত। পান চাষকে ঘিরে অনেক কৃষক ভাগ্য বদল হয়েছে। এক সময় এখানকার পান চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিভিন্ন আড়তে সরবরাহ হতো। দামও ছিল সন্তোষজনক। কিন্তু প্রকৃতির বিরূপ প্রভাবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পান চাষীরা নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। পরবর্তীতে পান চাষে সরকার কিংবা কোন সংস্থা চাষীদের সহযোগিতা করেনি। এতে পান চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন চাষীরা।
জানা গেছে, পান চাষে ব্যবহৃত বাঁশ ও খুঁটির দাম এখন নাগালের বাইরে। বর্তমানে বাঁশের ব্যাপকহারে মূল্যবৃদ্ধি ঘটেঠে। ফলে চাষীরা লাভের মূখ দেখতে পাচ্ছেন না। পাহাড়ে অধিকাংশ জমিতে ঘরবাড়ি গড়ে উঠেছে। পান চাষের বদলে এখন চাষীরা আম, কাঁঠাল, লিচু, আনারস, কলাসহ অন্যান্য ফসলের চাষাবাদ করছেন। এক সময় এ উপজেলায় প্রচুর পান বেচা বিক্রি হতো। পান বিক্রি বেশী হওয়ায় এ উপজেলা সদরে একটি বাজারের নামকরণ হয়েছে ‘পান বাজার’। নামে পান বাজার হলেও এখন সে বাজারে তেমন পান বিক্রি হয় না।

আরও পড়ুন

Back to top button