আর্কাইভ

শাশুড়িকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে শরীরে কেরেসিন ঢেলে হত্যার চেষ্টা

প্রবাসী পুত্রের স্ত্রী কর্তৃক বিধবা শাশুড়িকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে হত্যা চেষ্টা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয়রা মুর্মুর্ষ অবস্থায় আহতকে উদ্ধার কওে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে  বুধবার দুপুরে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত কালু খানের পুত্র দেলোয়ার খান জীবিকার তাগিদে গত নয় বছর ধরে সৌদি আরবে রয়েছেন। তার স্ত্রী ঝর্ণা বেগম (৩০) স্বামীর অর্বতমানে পরকীয়ায় আসক্ত হয়ে পরেন। এতে তার বিধবা শাশুড়ি মমতাজ বেগম (৬৫) বাঁধা প্রদান করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ লেগেই ছিলো। বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে ওই ঘটনার জের ধরে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে ঝর্ণা তার বিধবা শাশুড়িকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। একপর্যায়ে মমতাজ জ্ঞানশূণ্য হয়ে পরেন। এ সুযোগে ঝর্ণা তার শাশুড়ি মমতাজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে হত্যার চেষ্টা চালায়। এসময় মমতাজ বেগমের আত্মচিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় মমতাজ বেগমকে উদ্ধার করে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় ওইদিন বিকেলে বিধবা মমতাজ বেগমের বড়পুত্র কাঠমিস্ত্রি দুলাল খান বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার বাদি দুলাল খান জানান, হামলার পর ঝর্ণা ওই ঘরের আসবাবপত্র ব্যাপক ভাংচুর করেছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »