আর্কাইভ

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বেহাল দশা-যোগাযোগমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

Gournadi Highway Roadযোগাযোগের একমাত্র ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদী উপজেলার ভূরঘাটা বাসষ্ট্যান্ড থেকে নতুল্লাবাদ বাসটার্মিনাল পর্যন্ত প্রায় ৫০ কিলোমিটার মহাসড়ক এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে। যোগাযোগমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ব্যস্ততম এ মহাসড়কটির বেহাল দশার কারনে প্রতিনিয়ত এখন সড়ক দূর্ঘটনা ও যানবাহন বিকল হয়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

গতকাল শনিবার সকাল এগারোটার দিকে মহাসড়কের গৌরনদী পৌর এলাকার কাসেমাবাদ বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্নস্থানে মহাসড়কের ওপর পন্যবাহী একটি ট্রাক বিকল ও তার পার্শ্বেই আরেকটি গাছ বোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে মহাসড়কের ওপর উল্টে পড়ায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে মহাসড়কের দু’পার্শ্বে প্রায় দু’কিলোমিটার এলাকা জুড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় যানবাহন আটকা পরায় হাজার-হাজার যাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে। গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় প্রায় ঘন্টাকালব্যাপী চেষ্ঠা চালিয়ে বিকল ও উল্টে পড়া ট্রাক দু’টি মহাসড়কের পার্শ্বে সড়িয়ে নিয়ে বেলা বারোটার দিকে যানজট মুক্ত করে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ব্যস্ততম এ মহাসড়কের শিকারপুর ও দোয়ারিকা নদীর ওপর সেতু চালু হওয়ার পর সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা, তথা দক্ষিণাঞ্চলের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মহাসড়কের গুরুত্ব অনেকাংশে বেড়ে যায়। এ ব্যস্ততম রুটে প্রতিদিন হাজার-হাজার যানবাহন চলাচল করলেও মহাসড়কের প্রয়োজনীয় উন্নয়ন ও দীর্ঘদিনেও সড়কটি প্রশস্ত না করায় দিন দিন সড়কটি ভেঙ্গে চুরে যানবাহন চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। এরইমধ্যে আষাঢ়ের শুরু থেকে একটানা প্রবল বর্ষণের ফলে সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টিসহ রাস্তার কার্পেটিং উঠে যায়। যে কারনে গৌরনদী থেকে বরিশাল সদরের ৩০ মিনিট দূরত্বের পথ অতিক্রম করতে এখন তিন ঘন্টা সময় লেগে যাচ্ছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, সড়কটির বেহাল দশা। ব্যস্ততম এ মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার-হাজার পরিবহনে অসংখ্য যাত্রীরা দেশের বিভিন্নস্থানে যাতায়াত করতে গিয়ে এখন রিতিমতো পড়ছেন চরম দুর্ভোগে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নজরদারী না থাকা, রিপিয়ারিং না করা এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চরম উদাসীনতার কারনে মহাসড়কটি এখন মরনফাঁদে পরিনত হয়েছে বলে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন। ভুক্তভোগী এলাকাবাসি ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনানুযায়ী ব্যস্ততম এ মহাসড়কটি রিপিয়ারিংয়ের জন্য যোগাযোগমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। একই অবস্থায় রয়েছে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের পাশ্ববর্তী জনগুরুতপূর্ণ গৌরনদী-পয়সারহাট ভায়া আগৈলঝাড়া সড়কটি।

ব্যস্ততম মহাসড়কটি এখন মরন ফাঁদে পরিনত হওয়ার সতত্যা স্বীকার করে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ্ মোঃ শামস মোকাদ্দেস বলেন, মহাসড়কটি উন্নয়নের জন্য যে পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন সে পরিমাণ অর্থ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নেই। সড়কটি উন্নয়নের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »