আর্কাইভ

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের সংস্কার কাজ বন্ধ – নিন্মমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার

সোমবার বিকেলে দক্ষিণাঞ্চলের সাথে সড়কপথে যোগাযোগের একমাত্র ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদী এলাকায় সংস্কার কাজ বন্ধ করে দিয়ে স্থানীয় জনতা।

বরিশাল সড়ক উপ-বিভাগের উপ-প্রকৌশলী মোঃ নাসির উদ্দিন ভূঁইয়া জানান, বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বরিশাল থেকে গৌরনদীর ভুরঘাটা পর্যন্ত ৪৮ কিলোমিটারের ৩৮ কিলোমিটার মহাসড়ক সংস্কারের জন্য ৬ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়। কাজটি সম্পন্নের দায়িত্ব পায় সিরাজগঞ্জের জনৈক ঠিকাদার মোঃ ইসমাইল হোসেন। তিনি আরো জানান, ঈদের পূর্বে (আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে) খানাখন্দ ও পরবর্তীতে পুরো সংস্কার কাজ করার জন্য কাজটি সম্পন্নের জন্য গত দু’দিন থেকে ১৭০ জন নারী ও পুরুষ শ্রমিক নিয়ে ঠিকাদার কাজ শুরু করেন। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে (বৃষ্টি না হলে) সঠিক ভাবে কাজটি সম্পন্ন করা যাবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু জানান, গতকাল সোমবার বিকেলে মহাসড়ক সংস্কারের জন্য ঠিকাদারের লোকজন নিন্মমানের নির্মান সামগ্রী নিয়ে মাহিলাড়া ও বাটাজোর বাসষ্ট্যান্ডে আসে। এ সময় স্থানীয়রা নিন্মমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে কাজ করতে বাঁধা দিয়ে সংস্কার কাজ বন্ধ করে দেন। তিনি আরো জানান, বোল্ডার ভাঙ্গা পাথর দিয়ে মহাসড়ক সংস্কারের কথা থাকলেও ঠিকাদারের লোকজন মাটি মাখা সিংঙ্গেল্স (মরা পাথর) দিয়ে কাজ করতে আসে। গৌরনদীর কটকস্থল গ্রামের আনিসুর রহমান জানান, মহাসড়ক সংস্কারের নামে দুর্নীতির মহা বাতাস শুরু হয়েছে। নামপ্রকাশ্যে অনিচ্ছুক স্থানীয় সরকার দলীয় একাধিক নেতা জানান, ব্যাপক দুর্নীতির মাধ্যমে মহাসড়ক নির্মান কাজ সম্পন্নের জন্য ঠিকাদার প্রভাবশালী কতিপয় সাংসদকে মোটা অংকের টাকা উৎকোচ দিয়ে কাজ শুরু করেছেন। ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা সঠিক ভাবে ব্যস্ততম এ মহাসড়ক সংস্কারের জন্য যোগাযোগমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »