আর্কাইভ

চাঁদার দাবিতে গৌরনদীর টরকী বন্দরের ব্যবসায়ীর ওপর হামলা

রুহুল আমীন সিকদারের ওপর হামলা চালিয়েছে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার বিকেলে হামলার সময় রুহুলের ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান থেকে নগদ অর্থ লুটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বন্দরের ব্যবসায়ীরা তাৎক্ষনিক ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে ধর্মঘট ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

টরকী বন্দরের ভাই ভাই অয়েল মিলের স্বত্তাধীকারি আহত ব্যবসায়ী রুহুল আমীন সিকদার জানান, কসবা গ্রামের কবির তালুকদারের পুত্র ও এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী রহিম তালুকদার গত ৫ দিন পূর্বে তার কাছে মোটা অংকের টাকা চাঁদা দাবি করে। দাবিকৃত চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে সন্ত্রাসী রহিম ও ১০/১২ জন সহযোগীরা তার ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে অর্তকিত ভাবে হামলা চালায়। হামলায় রুহুল আমীন, সাহাবুল সিকদার, জাকির খান, সুজন খান, রনি সিকদার, মনু সরদার আহত হয়। এ খবর মুহুর্তের মধ্যে বন্দরে ছড়িয়ে পরলে তাৎক্ষনিক ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করে। এ সময় বন্দরের হাইস্কুল রোডে ব্যবসায়ীদের সাথে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলাকালীন সময় ঈদের কেনাকাটা করতে বন্দরে আগত ক্রেতাদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পরে। সন্ধ্যায় খবর পেয়ে গৌরনদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

গৌরনদী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, হামলাকারীদের বিচারের আশ্বাস দিয়ে ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »