আর্কাইভ

গৌরনদীর ৩০ টি স্পটে ইয়াবাসহ মাদকদ্রব্যের রমরমা বানিজ্য

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বরিশালের গৌরনদী উপজেলা ৩০ টি স্পটে ইয়াবাসহ মাদকদ্রব্য বিক্রি হচ্ছে। মাদক সেবীরা স্পটগুলোতে হাত বাড়ালেই মাদক দ্রব্য কিনতে পারছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষাক্ত রেক্টিফায়েড স্পিরিড পানে বুধবার রাতে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া শুক্রবার রাতে ডিবি পুলিশ ইয়াবা সম্রাজ্ঞী বেজগাতি গ্রামের ঝুমা বেগম নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে।
 
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলার দক্ষিন পালরদী, ভূরঘাটা, ইল্লা, বার্থী, কটকস্থল, গৌরনদী ও টরকী বাসষ্ট্যান্ড, গৌরনদী ও টরকী বন্দর, টরকীরচর, কসবা, দক্ষিণ বিজয়পুর, মাহিলাড়া, বাটাজোর, বিল্লগ্রাম, চন্দ্রহার, নলচিড়া, শরিকল, পিঙ্গলাকাঠি, ঘোষেরহাট, হোসনাবাদসহ ৩০ টি স্পটে ইয়াবা, প্যাথেডিন, ফেনসিডিল, রেক্টিফায়েড স্পিরিড, গাঁজাসহ মাদকদ্রব্য বিক্রি হচ্ছে। জানা গেছে, উপজেলার ৪/৫ জন মাদক সম্রাট সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদক দ্রব্য আমদানী করে পাইকারী দামে উপজেলার ওইসব মাদক বিক্রির স্পটে সরবরাহ করে আসছে। প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় প্রত্যেক স্পটে  ২/৩ জন খুচরা মাদক বিক্রেতা দাপটের সাথে স্পট গুলোতে মদ, গাঁজা, প্যাথেডিন, ফেনসিডিল ও ইয়াবা (বাবা) সহ মাদক দ্রব্যের  রমরমা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। মাদক সেবীরা স্পটগুলোতে হাত বাড়ালেই মাদক কিনতে পারছে। এখানে মাদক সেবীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। যুব সমাজ মাদক সেবন করে দিন দিন নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডের একাধিক ব্যবসায়ী জানান, মাদক ক্রেতা ও বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না, মাঝে মধ্যে বিভিন্ন মাদক দ্রব্য উদ্ধার বা মাদক বিক্রেতা গ্রেফতার হলেও তারা আইনের ফাকফোকর দিয়ে বেড়িয়ে এসে আবার মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন

Back to top button