আর্কাইভ

যুবদল নেতার হুমকির মুখে তিন বোনের স্কুলে যাওয়া অনিশ্চিত

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার সরিকল ইউনিয়নের আট নং ওয়ার্ড যুবদলের যুগ্ন সম্পাদক ও তার সহযোগীদের অব্যাহত হুমকির মুখে পূর্ব হোসনাবাদ গ্রামের সংখ্যালঘূ সম্প্রদায়ের তিন বোনের স্কুলে যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পরেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অজানা আতংকের মাঝে তারা এখনো স্কুলে আসা যাওয়া করলেও যেকোন সময় তাদের বড়ধরনের ক্ষতির আশংকায় ভুগছেন। এ ব্যাপারে অসহায় ওই পরিবারটি প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

পূর্ব হোসনাবাদ গ্রামের কাঠমিস্ত্রি সুনীল চন্দ্র মন্ডলের স্ত্রী ঊষা রানী মন্ডল জানান, উপজেলার প্রত্যন্ত পূর্ব হোসনাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তার প্রথম কন্যা সুমা মন্ডল এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী, দ্বিতীয় কন্যা মিতু মন্ডল নবম ও তৃতীয় কন্যা সিমা মন্ডল সপ্তম শ্রেনীতে অধ্যায়নরত। স্বামীর একার আয়েই ৫ কন্যা সন্তানকে নিয়ে কোন একমতে যেমন নুন আনতে পান্তা ফুরায় ঠিক তেমনই করে তাদের সংসার চলছে। শত কষ্টের মাঝেও তিনি ও তার দিনমজুর স্বামী স্বপ্ন দেখেন মেয়েদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হিসেবে গড়ে তোলার।

ঊষা রানী অভিযোগ করেন, তাদের সহয় সম্পত্তির ওপর দীর্ঘদিন থেকে লোলুপ দৃষ্টি পরে স্থানীয় মৃত রশিদ হাওলাদারের পুত্র প্রভাবশালী যুবদল নেতা তৈয়বুর রহমানের। তিনি ও তার ওয়ারিশরা বিভিন্ন সময় অসহায় সংখ্যালঘু পরিবারটিকে উৎখাতের জন্য নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে পরে। তারই ধারাবাহিকতায় অসহায় ওই পরিবারটির বিরুদ্ধে একে একে চারটি মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। প্রতিটি মামলায়ই মিথ্যে প্রমানিত হওয়ায় খারিজ হয়ে যায়। অভিযোগে আরো জানা গেছে, প্রভাবশালীদের হাত থেকে রেহাই পেতে অসহায় ওই পরিবারটি সম্প্রতি মানবাধিকার সংগঠন, থানা পুলিশসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যুবদল নেতা তৈয়বুর আবেদন প্রত্যাহারের জন্য চাপপ্রয়োগ করে। অভিযোগ প্রত্যাহার না করা হলে কিংবা এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করা হলে কাঠমিস্ত্রি সুনীলের স্কুল পড়–য়া ওই তিন কন্যার ইজ্জত নষ্ট করারও হুমকি দেয়া হয়। এছাড়াও যুবদল নেতার সহযোগী হলুদ হাওলাদার, নুর হোসেন, জামাল মিয়াসহ অন্যান্যরা কাঠমিস্ত্রি সুনীল ও তার স্ত্রী ঊষা রানীকে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পুরো পরিবারটি এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। যে কারনে অজানা আতংকের মাঝে ওই তিন বোন স্কুলে আসা যাওয়া করলেও যেকোন সময় তাদের বড়ধরনের ক্ষতির আশংকা করছেন।

তিন বোনের ইজ্জত নষ্ট ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ অস্বীকার করে যুবদল নেতা তৈয়বুর রহমান বলেন, উল্লেখিত অভিযোগের কোন সত্যতা নেই। তবে সুনীলের সাথে জমিজমা নিয়ে আমাদের বিরোধ রয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »