আর্কাইভ

এক খন্ড জমিই কাল হল বিধবা ফরিদার

উম্মে রুম্মান, বরিশাল ॥ একখন্ড জমিই বিধবা ফরিদার জন্য কাল। জমির কারণে বারবার নির্যাতনের শিকার হচ্ছে ৪ সন্তানের জননী বিধবা ফরিদা বেগম। এমনকি সন্তানদেরকেও মার খেতে হয় মায়ের সাথে সন্ত্রাসীদের হাতে। বিধবা ফরিদার কেউ না থাকায় মুখবুঝে নির্যাতন সহ্য করে যেতে হয় হাসপাতালে। মামলা করলেও পুলিশ তেমন ব্যবস্থা না নেয়ায় সন্ত্রাসীরা আরো উৎসাহীত হয়ে বারবার নির্যাতন চালাচ্চে ফরিদার উপর। সর্বশেষ ভাসুর পুলিশ ও তার ভাইয়ের হাতে নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে গত শুক্রবার সমালে উজিরপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ফরিদা বেগম। ঘটনাটি ঘটেছে উজিরপুরের বড়াকোঠা ইউনিয়নের চৌমোহনী হাটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গড়িয়াগাভা গ্রামে মৃত আব্দুল রহিম সৌদি আরবে মৃত্যুবরণ করায় তার জমি আত্মসাৎ করার জন্য বড় ভাই পুলিশে কর্মরত তাহের হাওলাদার ও ভাই করিম হাওলাদার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় মৃত আব্দুর রহিমের স্ত্রী ফরিদা পারভীন প্রতিবাদ করায় তার ও তার সন্তানদের উপরে বিভিন্ন সময়ে  নির্যাতন চালায়। ৫/৬ দিন পূর্বে ফরিদা পারভীনের স্বামীর জমিতে গাছ লাগালে ওই গাছ তাহের হাওলাদার উঠিয়ে ফেলে দিলে ফরিদা পারভীন উজিরপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে তদন্ত করতে গেলে এলাকাবাসী আপোষ মিমাংশা করার জন্য আজ সকালে দিন ধার্য করে। শালিসী বৈঠক চলাকালীন তাহের ও করিম বিধবা মহিলা পারভীনকে মারধর করে। এ ব্যাপারে ফরিদা পারভীন বাদী হয়ে ২ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করে। ইতোপূর্বে প্রায় ৪/৫ মাস আগে বিধবা ফরিদা বেগম ও তার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে পিটিয়ে জখম করেছিল ভাসুরেরা। এ ঘটনায় ফরিদা মামলা দায়ের করেছিল।

ফরিদা বেগমের এখন কাল হচ্ছে স্বামীর পৈত্রিক ভিটা। সেকারণে বার বার ফরিদা বেগম নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়ে তাদের পাওয়া যায়নি। ওসি সুকুমার রায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন বলে শিকার করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »