আর্কাইভ

বাবার কাছে না স্বামীর সাথে যাবো

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ “বাবার কাছে না আমি আমার স্বামীর সাথে যাবো। আমাকে কেউ অপহরন করেনি। সাইফুলের সাথে দীর্ঘদিন থেকে আমার প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। সেমতে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে ধর্মান্তরিত হয়ে আমি সাইফুলকে বিয়ে করে তার সাথে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছিলাম”। আজ সোমবার দুপুরে থানা কম্পাউন্ডে বসে অপকটে কথাগুলো বলেছে অপহরনের অভিযোগে পুলিশের উদ্ধার করা প্রেমিকা ভানু বাড়ৈ (বর্তমান নাম খাদিজা বেগম)।

জানা গেছে, বরিশালের গৌরনদী উপজেলার প্রত্যন্ত খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের বয়সা গ্রামে হরিপদ বাড়ৈর কন্যা ও মেদাকুল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ভানু বাড়ৈ প্রেমের টানে পাশ্ববর্তী সমরসিংহ গ্রামের ইচাহাক সরদারের পুত্র সাইফুল ইসলাম সরদারের সাথে গত ১ জানুয়ারি অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায়। এরইমধ্যে ভানু বাড়ৈ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে ধর্মান্তরিত হয়ে (মুসলমান ধর্মগ্রহন করে) সাইফুলকে বিয়ে করে সে নতুন নাম রাখে খাদিজা বেগম। অপরদিকে প্রেমিকা ভানু বাড়ৈর পিতা হরিপদ বাড়ৈ গৌরনদী থানায় একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন। পুলিশ আটদিন পর গত ৮ জানুয়ারি কালকিনি উপজেলার পাঙ্গাসিয়া গ্রাম থেকে ভানু বাড়ৈরকে উদ্ধার করে। আজ সোমবার দুপুরে তাকে আদালতে সোর্পদ করা হয়। ওইদিন বিকেলে আদালতে বসে ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছেও ভানু বাড়ৈর উল্লেখিত জবানবন্দি প্রদান করে। পুলিশ জানায়, ম্যাজিষ্ট্রেট খাদিজা বেগমকে (পূর্বের নাম ভানু বাড়ৈ) সেইভ হোমে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »