আর্কাইভ

বরিশালে র‌্যাবের অভিযানে দু’বোনসহ তিন অপহৃতা উদ্ধার – অপহরনকারী গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ নগরীর নথল্লাবাদ বাস টার্মিনালস্থ আবাসিক হোটেল কাশফুল থেকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে র‌্যাব-৮’র সদস্যরা অভিযান চালিয়ে অপহৃত দু’বোন ও  শিশু সন্তানকে উদ্ধারসহ এক অপহরনকারীকে আটক করেছে।

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার ধানকুড়া গ্রামের মৃত মোহন শেখের স্ত্রী হালিমা বেগম জানান, গত ১১ জানুয়ারি সকালে খুলনা থেকে তার কন্যা শিলা বেগম (২৯) ও সীমা খানম (২৩) ও শিলার পুত্র সন্তান ইমন শেখ (৮) ঢাকার এক নিকট আত্মীয়র বাসায় বেড়াতে যাওয়ার জন্য  রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে তারা নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুজি করেও তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় হালিমা বেগম গত ১৮ জানুয়ারি কাশিয়ানী থানার একটি সাধারণ ডায়রি করেন। ওইদিন রাতেই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে হালিমা বেগমকে জানানো হয় শিলা, সীমা ও ইমনকে ফেরত পেতে হলে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপন দিতে হবে। আর এ ঘটনা প্রশাসনকে জানালে ওদের কাউকে জীবিত রাখা হবে না বলেও হুশিয়ারি দেয়া হয়। পরবর্তীতে অপহরকারীদের নির্ধারিত মোবাইল নাম্বার ও ঠিাকানা পেয়ে হালিমা বেগম তার দু’কন্যা ও নাতীকে উদ্ধারের জন্য বরিশাল র‌্যাব-৮’র বরাবরে একটি আবেদন করেন। বরিশাল র‌্যাবের সিপিসি-১ এর একটি বিশেষ গোয়েন্দা দল অপহরনকারীদের গ্রেফতার ও অপহৃত ব্যক্তিদের উদ্ধারের জন্য দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো শুরু করে। একপর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে র‌্যাবের সিপিসি-১ এর বিশেষ টহল দল নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালস্থ আবাসিক হোটেল কাশফুলে অভিযান চালিয়ে অপহরনকারী গোপালগঞ্জ জেলার সদর থানার বরফা মোল্লাপাড়া গ্রামের মোতালেব হোসেন মোল্লার পুত্র মোঃ ইসমাইল হোসেন মোল্লা ওরফে মাহফুজকে (৩২) আটকসহ অপহৃতা নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার পান্নু শেখের স্ত্রী শিলা বেগম (২৯) তার শিশু পুত্র ইমন (৮), গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার ধানকুড়া গ্রামের মৃত মোহন শেখের কন্যা সীমা খানমকে (২৩) উদ্ধার করে।
র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে অপর অপহরনকারী দলের সদস্যরা কৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। র‌্যাব সূত্রে আরো জানা গেছে, ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত মাহফুজ জানিয়েছে তার সাথে নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার আলমগীর হোসেন নামের এক ব্যক্তি জড়িত রয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »