আর্কাইভ

ব্যাপক ভাংচুর – পুলিশসহ আহত ১০ – আটক ২০ – বরিশাল পলিটেকনিক্যাল ইনিষ্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের তান্ডব – সড়ক অবরোধ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের পদ মর্যাদা সরকার দ্বিতীয় থেকে তৃতীয় শ্রেণীতে নামিয়ে এনেছে, এমন গুজব খবরে বরিশাল পলিটেকনিক্যাল  ইনিষ্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ মিছিল করেছে। বিক্ষোভ মিছিল শেষে বিক্ষুব্ধরা সড়ক অবরোধ, দোকান, আবাসিক ভবন এবং গাড়ি ভাংচুর করেছে। দুপুর আড়াইটা থেকে শুরু করে ঘন্টাব্যাপী প্রায় দু’শতাধিক বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা লাঠিসোটা নিয়ে পলিটেকনিক্যাল ইনিষ্টিটিউটের সড়ক থেকে শুরু করে বটতলা চৌমাথার সিএন্ডবি সড়ক পর্যন্ত তান্ডব চালায়।

বিক্ষুব্ধরা সাকুরা পরিবহনের একটি গাড়ি, চারটি পিকআপ ভ্যান, একটি মাহেন্দ্র ভাংচুর করে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা একটি আবাসিক ভবনসহ দশটি ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। এসময় ব্যবসায়ীদের সাথে বিক্ষুব্ধদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মিছিলের পিছনে দায়িত্বপালনকারী তিন পুলিশ সদস্য ভাংচুরের সময় ছাত্রদের বাঁধা দিতে গেলে বিক্ষুব্ধরা ওই তিন পুলিশ সদস্যকেও মারধর করে। হামলা ও পাল্টা হামলায় পুলিশসহ উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

খবর পেয়ে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক লাঠিচার্জ করে বিক্ষুব্ধদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। কোতয়ালী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মতিয়ার রহমান জানান, বিক্ষুব্ধদের শান্ত করতে ঘটনাস্থল থেকে ২০ ছাত্রকে আটক করা হয়েছে।

কলেজ অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মীর মোঃ মোশারফ হোসেন জানান, পদ অবনতির খবরটি নিছক গুজব। তার কাছে এ ধরনের কোন চিঠি আসেনি। অধ্যক্ষ আরো জানান, এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »