আর্কাইভ

গৌরনদীতে সরকারি খাল ভরাট করে আ’লীগ নেতার দখলবাজি

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ প্রবহমান সরকারি একটি খালের পানি দিয়ে কয়েকটি গ্রামের কৃষি জমিতে সেচ সংকট মোকাবেলা করা হয়। সেই জনগুরুতপূর্ণ খালটি দখলের জন্য ড্রেজার মেশিন বসিয়ে ভরাট কাজ অব্যাহত রেখেছেন প্রভাবশালী এক আওয়ামীলীগ নেতা। স্থানীয় প্রশাসন অবৈধভাবে খাল ভরাট কাজে নিষেজ্ঞা জারি করলেও প্রশাসনকে বৃদ্ধাঅঙ্গুলি দেখিয়ে ভরাট কাজ অব্যাহত রাখা হয়েছে। ঘটনাটি বরিশালের গৌররনদী উপজেলার টরকী বন্দর সংলগ্ন সাউদের খালের পাড় এলাকার।

সরেজমিনে এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা মোঃ মোশারফ হোসেন হাওলাদার গত এক সপ্তাহ ধরে পালরদী নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে টরকী বন্দর-বড়দুলালী সড়কের পার্শ্বের ঐতিহ্যবাহী সাউদের খালে বালু ও মাটি ভরাট করে দখলের কাজ শুরু করেন। মোশারফ হাওলাদার স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। আ’লীগ নেতা মোশারফ হোসেন হাওলাদার নির্বিঘেœ ওই খাল ভরাট করার জন্য খালের পাড় জুড়ে বিশাল টিনের বেড়া দিয়ে ভরাট কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, এ ঘটনায় স্থানীয়রা গৌরনদী পৌরসভায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১ জুন পৌর কর্তৃপক্ষ খাল ভরাটে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। টরকী বব্দরের ব্যবসায়ী এনায়েত হোসেন খান অভিযোগ করেন, পৌর কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মোশারফ খাল ভরাটের কাজ অব্যাহত রেখেছেন।

কটকস্থল গ্রামের ক্ষুদ্র কৃষক জাহাঙ্গীর হোসেন, তাঁরাকুপি গ্রামের হালিম শাহসহ একাধিক কৃষকেরা জানান, সাউদের খালের পানি দিয়ে এ খালের পাড়ের ২০ টিরও অধিক ব্লকে ইরি-বোরো চাষ করা হয়। এ খাল খরাট করা হলে আগামী ইরি-বোরো মৌসুমে সেচ সংকট দেখা দিবে। তারা এ প্রহমান খাল ভরাট বন্ধের জন্য প্রসাশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

পৌরসভার ২ নং ওযার্ডের কাউন্সিলর কে.এম আহসান ইমাম খায়রুল এ প্রসঙ্গে বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে অবৈধ ভাবে খাল ভরাট কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো। মোশারফ হোসেন ক্ষমতার প্রভাব্ খাটিয়ে নিষেধ অমান্য করে খাল ভরাট কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

অভিযোগের ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা মোশারফ হোসেন হাওলাদারের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে সাংবাদিক পরিচয় দেয়ার পর তিনি ব্যস্ত আছেন বলে ফোনের লাইনটি বিচ্ছিন্ন করে দেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »