আর্কাইভ

বড় ও ছোট ভাইয়ের দখলে বরিশাল

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল ॥ প্রশাসনকে বৃদ্ধাঅঙ্গুলি দেখিয়ে বরিশাল নগরীসহ প্রতিটি উপজেলা দখল করে আছে মরন নেশা বড় ভাই (ফেন্সিডিল) ও ছোট ভাই (ইয়াবা ট্যাবলেট)। কয়েকটি উপজেলায় হরহামায়াশেই প্রসাশনের নাগের ডগায় এসব মাদকের হাট বসছে। বিশেষ করে গৌরনদী উপজেলার প্রায় ৪০টি স্পটে দেদারছে সবধরনের মাদক দ্রব্য বিক্রি হচ্ছে। ফলে ক্রমেই যুবসমাজ থেকে শুরু করে তরুন ও উঠতি বয়সের কিশোররা ধ্বংসের দিকে চলে যাচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে পুলিশের কতিপয় কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করেই মাদক বিক্রেতারা দিনের পর দিন দাপটের সাথেই এ ব্যবসা করে যাচ্ছেন। উচ্চ মহলের চাপের মুখে অনেক সময় লোকদেখানো ভাবে পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করলেও রাঘব বোয়ালরা (র্শীর্ষ মাদক বিক্রেতারা) থাকছে ধরাছোয়ার বাহিরে। ফলে দিন দিনই এ ব্যবসা আরো প্রসারিত হচ্ছে।

নগরীর অমৃত লাল দে সড়কের মাদক সেবনকারী জনৈক সুমন জানায়, নগরীর অধিকাংশ এলাকায় প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই মাদক ব্যবসা করা হচ্ছে। মাদক ব্যবসায়ীরা প্রতি সপ্তাহে প্রসাশনের বিভিন্ন স্থরে এমনটি কতিপয় সংবাদকর্মীদের ম্যানেজ করে দাপটের সাথে তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক মাদক সেবনকারী জানায়, নগরীর নাজির মহল্লায় ইয়াবা বিক্রি করছে মটরসাইকেল মানিক, গোরস্থান রোডে উজিরপুরের মানিক ও ইলেট্রিক রিয়াজ, কালীবাড়ি সড়কে কালা সেন্টু, কেডিসি এলাকায় রুবেলের মা পারুল, বিএম কলেজ রোডে বাবু, ভিডিও টুটুল, বটতলার রিপন। এছাড়াও ঈদগাঁহ মসজিদ সংলগ্ন বস্তিতে অপ্রতিরোধ্যভাবে ইয়াবা, গাঁজা ও হেরোইন বিক্রি করছে গাঁজা হালিমের স্ত্রী ও শ্যালিকা। বরিশাল কলেজ এলাকায় রাসেল, রিয়াজ, মেড রনি, লম্বা জিতু। কাশিপুর স্কুল ও কলেজ এলাকায় ফেন্সিডিল বিক্রি করছে রাইফেল মহিউদ্দিন, কাশিপুর পোষ্ট অফিস এলাকায় লিখন, অমৃত লাল দে কলেজ এলাকায় বিপ্লব, আমানতগঞ্জ এলাকালায় নুরু ও ফারুক, ভাটিখানা সেকশন রোডে মাদক সম্রাট নাসির উদ্দিন (ডালাস নাসির), কালা অমল, কাউনিয়া এলাকার শামিম ও আলেকান্দার মনির। মাদক বিক্রেতারা ছন্মনাম হিসেবে ফেন্সিডিলকে বড় ভাই ও ইয়াবা ট্যাবলেটকে ছোট ভাই নামে ডাকেন।

সূত্রে আরো জানা গেছে, নগরীর এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার ছত্রছায়ায় মাদক বিক্রেতারা দাপটের সাথেই তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও অভিযোগ রয়েছে গৌরনদীর রাজাপুর, নন্দপট্টি, ধানডোবা, কটকস্থল, টরকী, কসবা, দক্ষিণ বিজয়পুর এলাকায় প্রায় প্রকাশ্যেই দীর্ঘদিন থেকে মাদকের হাট বসে। স্থানীয় সচেতন মহল এসব মাদক বিক্রি বন্ধসহ তালিকাভূক্ত মাদক বিক্রেতাদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »