আর্কাইভ

প্রতিবন্ধীর ভাতা প্রদানে উৎকোচ গ্রহনের অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে ভাতা প্রদানে উৎকোচ গ্রহনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বই করার জন্য ঘুষ দেয়ার পরেও পূর্ণরায় ভাতার টাকা থেকে উৎকোচ দাবি করা হয়। দাবিকৃত ঘুষের টাকা না দিলে ভাতার বই কর্তনের হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। ঘটনাটি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্মপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামের।

অভিযোগে জানা গেছে, ওই গ্রামের দিনমজুর উপেন বিশ্বাসের শারিরিক প্রতিবন্ধী কন্যা বাসনা বিশ্বাসের (২০) জন্য সাবেক ইউপি সদস্যা কল্পনা রানী বিশ্বাস অপেক্ষামান প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকায় নাম রাখেন। সম্প্রতি বাসনা বিশ্বাসের নাম প্রতিবন্ধী ভাতার নিয়মিত তালিকায় ওঠে। এসময় তালিকাভুক্তির জন্য বর্তমান ইউপি সদস্যা শেফালী রানী হাজরা নাম উত্তোলনের জন্য উপেন বিশ্বাসের কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে ২৫’শ টাকা ঘুষ গ্রহন করেন। গত ৩১ মে প্রথম ভাতা বিতরনের সময় পূর্ণরায় ইউপি সদস্যা শেফালী রানী প্রতিবন্ধী বাসনার পিতা উপেন বিশ্বাসের কাছে বিতরনকৃত ১৮’শ টাকার মধ্যে উৎকোচ বাবদ ১২’শ টাকা দাবি করেন। তার দাবিকৃত উৎকোচের টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করায় ইউপি সদস্যা শেফালী রানী প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা থেকে বাসনার নাম কর্তনের হুমকি দেয়। তার অব্যাহত হুমকির মুখে উপায়অন্তুর না পেয়ে দিনমজুর উপেন বিশ্বাস রতœপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »