আর্কাইভ

বরিশালে নিখোঁজ এক পুলিশ কনষ্টবলের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হওয়ার আটদিন পর আজ বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল জেলা পুলিশের কনষ্টবল (আদালতে কর্মরত) খোকন চন্দ্র রায়ের (৪৮) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কীর্তনখোলা নদীর ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলার দক্ষিণ রায়পুরা এলাকার বটতলা চর নামকস্থান থেকে খোকনের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে নলছিটি থানা পুলিশ। অপর পুলিশ কনষ্টবল শামীম আকনের কোন সন্ধ্যান এখনো মেলেনি।

নলছিটি থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আবুল হোসেন জানান, সকাল নয়টার দিকে স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে নদী থেকে অর্ধগলিত একটি লাশ উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে খবর পেয়ে বরিশাল থেকে নিখোঁজ পুলিশ কনষ্টবল খোকন চন্দ্র রায়ের স্ত্রী ঝর্না রায় ও তার পরিবারের সদস্যরা নলছিটি থানায় এসে খোকনের লাশ সনাক্ত করেন। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, লাশের শরীরে পচন ধরায় শরীরে  কোন আঘাতের চিহ্ন রয়েছে কিনা সঠিক করে তা বোঝা যাচ্ছে না। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে মৃত্যুর কারন নিশ্চিত হওয়া যাবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

খোকন চন্দ্র রায়ের স্ত্রী ঝর্না রায় জানান, গত ১১ জুলাই বিকেল পাঁচটার দিকে নগরীর বটতলা এলাকার ভাড়া বাসা থেকে খোকন পুলিশ লাইনে যাওয়ার কথা বলে বের হন। এরপর থেকে সে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় তিনি (ঝর্না) গত ১২ জুলাই বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন। কনষ্টবল খোকন চন্দ্র রায়ের গ্রামের বাড়ি বাউফল উপজেলার কেশবপুরে। তার কনষ্টবল নং-৩২৪।

বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুর রহিম জানান, গত ১০ জুলাই বিকেলে ১০ দিনের ছুটি নিয়ে তার গাড়ি চালক কনষ্টবল মোঃ শামীম আকন তার বাসায় যায়। এরইমধ্যে গত ১১ জুলাই ভোর ছয়টায় দিকে শামীম বাসা থেকে বের হয়ে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় সাধারন ডায়েরী করেছেন নিখোঁজ কনষ্টবল শামীম আকনের ছোট ভাই পুলিশ কনষ্টবল মোঃ আল-আমিন।

 

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »