আর্কাইভ

দারিদ্রতা পিছু ফেরাতে পারেনি বেলুহার মাদ্রাসার ছয় শিক্ষার্থীকে

খোকন আহম্মেদ হীরা ॥ আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের প্রত্যন্তবেলুহার নেছারিয়া আলিম মাদ্রাসার অসহায় দারিদ্র শিক্ষার্থীরা আলিম পরীক্ষায় ভাল ফলাফল করেছে। মাদ্রাসার ক্লাশ রুম ও শিক্ষক সংকট থাকার পরেও ওই মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা প্রতিবছরই ভাল ফলাফল করে আসছে। চলতি বছরে আলিম পরীক্ষায় ১৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৪ জনই পাশ করেছে। এদের মধ্যে থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬জন। ওই মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মিজানুর রহমান ও অন্যান্য শিক্ষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমে মেধাবী শিক্ষার্থীরা প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও ভাল ফলাফল করতে সক্ষম হয়েছে।

মোঃ ওয়ালিউল্লাহ সাদ্দাম-নিজে প্রাইভেট না পড়ে অন্যকে প্রাইভেট পড়িয়ে এবং অন্যের জমিতে কাজ করে দরিদ্র কৃষক আব্দুল আলী হাওলাদারের পুত্র সাদ্দাম আলিম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে। সে ওই মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষায়ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল। সে ৫ ভাই-বোনের মধ্যে বড়। পিতার অসুস্থ্যতার কারনে সংসারের হাল ধরতে হয়েছে তাকে। মা মনোয়ারা বেগম অন্যের বাড়িতে ঝিয়ে কাজ করে যা পায় তা দিয়ে কোন রকম তাদের সংসার চলছে। সে লেখাপড়া করে ভবিষ্যতে একজন আর্দশ ডাক্তার হতে চায়।

মোঃ শাহাদাত হোসেন রোমান- রতœপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের পুত্র শাহাদাত হোসেন রোমান দৈনিক ৪-৫ ঘন্টা লেখাপড়া করে মাদ্রাসা বোর্ডের আলিম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে। ২ ভাই ১ বেনোর মধ্যে সে বড়। সে লেখাপড়া করে ভবিষ্যতে একজন সরকারী কর্মকর্তা হিসাবে দেশ পরিচালনা করতে চান। সে দাখিল পরীক্ষায়ও একই মাদ্রাসা থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছিল।

মোসাম্মদ রুনা আক্তার-বেলুহার গ্রামের দরিদ্র নেছার উদ্দিন মিয়ার কন্যা রুনা আক্তার নিজে প্রাইভেট না পরে দৈনিক ৬-৭ ঘন্টা লেখাপড়া করে বেলুহার নেছারিয়া আলিম মাদ্রাসা থেকে  আলিম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে। সে ওই মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষায়ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ৪ বোন ২ ভাইয়ের মধ্যে সে তৃতীয়। লেখাপড়া করে ভবিষ্যতে সে একজন আর্দশ শিক্ষক হতে চায়।

মোসাম্মদ লাকি আক্তার-একই গ্রামের অসহায় আব্দুল লতিফ মিয়ার কন্যা লাকি আক্তার লেখাপড়া করে আলিম পরীক্ষায় মাদ্রাসা বোর্ডের জিপিএ-৫ পেয়েছে। সে ওই মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষায়ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২ ভাই ২ বোনের মধ্যে সে বড়। সে লেখাপড়া করে একজন ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়।

মোসাম্মদ হাফিজা আক্তার-রতœপুর গ্রামের মাইনদ্দিন মিয়ার কন্যা হাফিজা আক্তার দৈনিক ৫-৬ ঘন্টা লেখাপড়া করে নিজে প্রাইভেট না পরে আলিম পরীক্ষায় বেলুহার নেছারিয়া আলিম মাদ্রাসা থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। সে ৩ বোন ১ ভাইয়ের মধ্যে বড়। সে লেখাপড়া করে ভবিষ্যতে উচ্চ পর্যায়ে সরকারী কর্মকর্তা হতে চায়।

মোসাম্মদ ইভা খানম-একই মাদ্রাসা থেকে দরিদ্র আবু সালেহ’র কন্যা ইভা খানম লেখাপড়া করে আলিম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে। ৪ভাই ৩ বোনের মধ্যে সে ২য়। সে লেখাপড়া করে একজন আর্দশ শিক্ষক হতে চায়।

দারিদ্রতা পিছু ফেরাতে পারেনি বেলুহার মাদ্রাসার ছয় শিক্ষার্থীকে

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »