আর্কাইভ

ফুটবল ফুটবল, দুরন্ত ফুটবল, চারদিকে ফুটবল জয়ধ্বনি – ওয়াচডগ

 

এ নিয়ে জল্পনা কল্পনার শেষ ছিলনা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিশ্চিত করা হল, উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকছেন দেশটার আসল মানুষ। ফুটবল নিয়ে আমার তেমন কোন উচ্ছাস নেই। কে জিতল আর কে হারল এ নিয়েও নেই বিশেষ মাথা ব্যথা। বিশ্বকাপ ফুটবলের শুরুটা দেখতে ভুল করব না তাও। কারণ ওখানে উপস্থিত থাকবেন নেলসন মেন্ডেলা। ৯১ বছর বয়স্ক এই কিংবদন্তী নেতা ও রাষ্ট্র নায়ককে জীবিতাবস্থায় দ্বিতীয়বার দেখা হবে কিনা কেন জানি সন্দেহ হয়। কাঁচা হাতের বাঁকা লেখা দিয়ে নেত্রী পূজার গুষ্টি উদ্ধার করছি নিয়মিত, কিন্তু এই একটা নাম নিয়ে কিছু লিখতে গেলে কলম এমনিতেই থেমে আসে। মনে হয় যথেষ্ট হচ্ছে না তার পূজা। ওদের চামড়া সাদা। ইউরোপের বিভিন্ন দেশ হতে আফ্রিকার এ প্রান্তে এসেছিল সোনা, রূপা, হীরা জহরতের সন্ধানে। কাল চক্রে এই এরাই স্বদেশী কালোদের নিজ ভূমিতে অচ্ছুত বানিয়ে শাসনে শোষনে জর্জরিত করে রেখেছিল যুগ যুগ ধরে। দেশটার রব্বেন দ্বীপের নির্জন কারাকক্ষে জীবনের ২৭টা বসন্ত পার করতে বাধ্য হয়েছিলেন নেতা ম্যান্ডেলা। শোষিত কালোদের মুক্তি নিয়ে কথা বলতেন তিনি এবং এটাই ছিল তার অপরাধ। ১৯৯০ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারী জেল হতে বেরিয়ে প্রতিশোধের নাঙা তরবারি হাতে ঝাপিয়ে পরেননি ভিনদেশী সাদাদের উপর। বরং ন্যাশনাল রিকনসেলিয়েশনের কথা বলে একত্রিত করেছিলেন দেশটার সাদা, কালো আর রংগিন ভারতীয়দের। এভাবেই শুরু হয়েছিল দক্ষিন আফ্রিকা নামের মালটি রেসিয়াল দেশের যাত্রা। ১৯৯৪ সাল হতে ২০১০ সাল, খুব কি লম্বা সময় একটা যুদ্ধ বিধ্বস্ত জাতির জন্যে? স্বেচ্ছায় ক্ষমতা হতে সড়ে গেছেন সেই ১৯৯৯ সালে, এবং বাস করছেন একান্ত ব্যাক্তিগত জীবন। তৃতীয় বিশ্বের জন্যে তিনি রেখে যাচ্ছেন অবিস্মরণীয় এক ম্যাসেজ, ’ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ’। এখানেই ম্যান্ডেলার অমরত্ব। লোভ লালসাকে জয় করেও যে তৃতীয় বিশ্বের নেতা হওয়া যায় ম্যান্ডেলার অনুপস্থিতিতে পৃথিবী এমনটাই বলবে, বলতে বাধ্য হবে। ১৯৭১’এ শুরু করে আমাদের যাত্রা আজ কোন গলিতে তার প্রমাণ বাংলাদেশের ঘরে ঘরে উড়ন্ত ব্রাজিল আর্জেন্টিনা সহ বিভিন্ন দেশের পতাকা। উদাহরণটা এ রকম, ছাগলের এক বাচ্চা দুধ খায় আর বাকি দুই বাচ্চা নাচে আর গান গায়, ’ কি মজা, কি মজা ও দুধ খায়!‘ ওরা খেলবে আর আমরা নাচব, এটাই বোধহয় আমাদের নিয়তি।

আজ রাজনীতি থাক। আসুন অন্তত কটা দিনের জন্যে হলেও জীবনকে সপে দেই ফুটবলের হাতে। ঘাত প্রতিঘাতে ভরা আমাদের জীবনে আনন্দ করার মত উপলক্ষ খুব কমই আসে। বিশ্বকাপ ফুটবল তেমনি একটা উপলক্ষ যা রাজনৈতিক মেরুকরণের বাইরে এনে আমাদের এক করবে। হয়ত কটা দিনের জন্যে হলেও আমরা ভুলতে পারব দেশটার রাজনৈতিক বিভাজন, নীতি ও নৈতিকতার লড়াই।

সফল হোক আফ্রিকার আয়োজন। জয় হোক ফুটবলের।

 


 

ছাগলের ৩ নং বাচ্চা…

এরা আসলেই ছাগলের ৩ নং বাচ্চা। খেলে অন্য দেশ, লাফায় বাংলাদেশ…
ঘরের খেয়ে বনের মেষ তাড়ানোর মত অবস্হা।
একবার আর্জেন্টনা বা ব্রাজিল হারুক, দেখবেন কয়টা ছাগল সুইসাইড করে!!!
World Cup Football 2010
বিশ্বকাপের উন্মাদনায় মেতে উঠেছে বাংলাদেশ। নারায়ণগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রায় মেতে উঠেছে দুইবার বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টিনা সমর্থকেরা। ছবি: প্রথম আলো

World Cup Football 2010
আর্জেন্টিনার দুই তারকা ম্যারাডোনা ও মেসির পোস্টার নিয়ে সমর্থকদের ঘোড়ার গাড়ি নিয়ে মিছিল। ছবিটি নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে তোলা। ছবি: প্রথম আলো


WatchDog – AmiBangladeshi.Org

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »