আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নে এক ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে হামলা ও চাঁদাবাজীর মামলা দায়ের করেছে তারই এক প্রতিপ। মামলার স্বাক্ষীরা ঘটনার বিষয়ে বলেন শুনেছি-জানিনা। এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজিহার ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের চেংগুটিয়া গ্রামের মৃত তোতা তালুকদারের ছেলে ইউপি সদস্য ডবলু তালুকদার ওরফে হাবিবুর রহমানের সাথে একই গ্রামের মৃত আদেল উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে আহম্মদ হাওলাদারের দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। ইউপি নির্বাচনের জের এবং জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ইউপি সদস্য ডবলু তালুকদারকে ঘায়েল করতে আহম্মদ আলী চাঁদাবাজী ও হামলার ফিরিস্তি উলেখ করে গত ৯ ডিসেম্বর আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরনে জানা গেছে, জমি জমার বিরোধের জেরধরে ডবলু তালুকদার আহম্মেদের নিকট ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেন। গত ৭ ডিসেম্বর সকালে আহম্মদ আলী বাড়ি থেকে আগৈলঝাড়া আসার পথে ঈদগাহ মাঠ নামকস্থানে ডবলু ও তার লোকজনে আহম্মদকে মারধর করে তার সাথে থাকা ৩০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। বাকী ২০ হাজার টাকাও ওই সময় দিতে বলে। সরেজমিনে চেংগুটিয়া গ্রামের স্থানীয় শামীম তালুকদার, শহীদ তালুকদার, এনামুল হাওলাদার, ইলিয়াস হাওলাদার, আলমগীর খলিফা, মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব হাওলাদার, জিএম ফারুক, ব্যবসায়ী নাঈম হাওলাদার, ঈদগাহ মসজিদের ঈমাম নজরুল ইসলামসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনেরা জানান, আমরা উলেখিত বিষয়ে কিছুই জানিনা। এজাহারের স্বাী সালাম হাওলাদার বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা, অপর স্বাী প্রাক্তন ইউপি সদস্য মহিউদ্দিন তালুকদার ও স্থানীয় সায়েম তালুকদার বলেন, আমরা বিষয়টি শুনেছি। এ বিষয়ে মামলার বাদী আহম্মদ হাওলাদারের ব্যবহৃত (০১৭১৮-২৪৭৩৪৪) নাম্বারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও কথা বলা যায়নি। রাজিহার ইউপি চেয়ারম্যান ইলিয়াস তালুকদার বলেন, বিভিন্ন সূত্রে আমি ঘটনাটি শুনেছি। এ বিষয়ে ডবলু তালুকদার বলেন, আমাকে হয়রানী করার জন্য বিভিন্ন মহলের ইন্দনে পরিকল্পিত ভাবে মামলা করানো হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »