আর্কাইভ

অবরোধ ও হরতালের কর্মসূচিতে বিচ্ছিন্ন ঘটনায় গৌরনদীর বিএনপির ৫৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বিএনপিসহ ১৮ দলীয় জোটের  ডাকা অবরোধ ও হরতালর কর্মসূচিতে বিচ্ছিন্ন কয়েকটি ঘটনায় বরিশালের গৌরনদী উপজেলা বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের ৫৬ নেতাকর্মীকে আসামি করে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। সওজের গাছ কেটে দুই স্থানে ও টায়ার জ্বালিয়ে মহাসড়কে অবরোধ সৃষ্টি এবং চাল বোঝাই ট্রাকে কেরোসিন ঢেলে অগ্নিসংযোগে পোড়ানোর ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে এ মামলা দুইটি দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যদর্শীরা জানায়, হরতাল সমর্থক নেতা-কর্মীরা মঙ্গলবার ভোর রাত ৪টার দিকে গৌরনদী বাসস্ট্যান্ডের দণি পাশে বিএনপির অফিসের সামনে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের ওপর গাছের গুড়ি ফেলে মহাসড়কে অবরোধ সৃষ্টি করে। এ সময় ১৫-২০ জনে হামলা চালিয়ে দিনাজপুর থেকে ঝালকাঠীগামী ঢাকা-মেট্রো-ট, ১৬-৬৫৫২ নম্বরের একটি চাল বোঝাই ট্রাকে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় ট্রাক চালক তছলিম উদ্দিনসহ ২ জনকে মারধর করে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। কেরোসিন সরবরাহ করার অভিযোগে মঙ্গলবার সকালে যুবলীগের কয়েক জন নেতা কর্মী গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডের ব্যবসায়ী সিরাজ হাওলাদারকে মারধর করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। গৌরনদী থানার ইনচার্জ ওসি মোঃ আবুল কালাম জানান, ট্রাকে অগ্নিসংযোগে ৬ লাধিক টাকার য়তির হওয়ার ঘটনায় এ এস,আই শামীম আহম্মেদ বাদী হয়ে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ১৪ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ২১ জনকে আসামি করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায়  গৌরনদী থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করে। এ মামলায় সিরাজ হাওলাদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। টায়ার জ্বালিয়ে ও সরকারি গাছ কেটে মহাসড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির কারণে থানার এসআই সোলায়ামান মাহমুদ বাদী হয়ে উপজেলা বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের অজ্ঞতনামা ৩৫ নেতাকর্মীকে আসামি করে রোববার রাতে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এজাহারে প্রকাশ, রোববার ভোর রাতে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর এলাকার আবদুল হাই ও আক্কাস শিকদারের বাড়ির মধ্য স্থানে, তাঁরাকুপি মসজিদের কাছে মহাসড়কের গাছ কেটে ও ভূরঘাটা ব্রিজের ওপর টায়ার জ্বালিয়ে বিএনপির ও তার অঙ্গ সংগঠনের অজ্ঞাতনামা নেতাকর্মীরা মহাসড়কে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ কারনে ওই তিনটি এলাকার বিএনপির অজ্ঞাতনামা ৩৫ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ১৪৩/২৮৩/৩৩৬/৪২৭/৩৪ দন্ড বিধিতে মামলা দায়ের করা হয়। বিএনপির দলীয় সুত্র জানায়, অজ্ঞাতনামাদের আসামী করায় স্থানীয় বিএনপির নেতা, কর্মীরা এখন গ্রেফতার আতঙ্কে ভূগছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »