আর্কাইভ

বরিশালে ভূয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে অপহরনের চেষ্টা – মাইক্রোবাসসহ চালক গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ভূয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে বরিশালের গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড সুপার মার্কেটের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে অপহরনের চেষ্ঠা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে অপহরনকারীরা। পুলিশ অপহরকারীদের বহনকারী মাইক্রোবাসসহ চালককে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদী পৌর এলাকার দক্ষিণ বিজয়পুর মহল্লার পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিসের সম্মুখে।

স্বর্ণ ব্যবসায়ী সোহেল গোমস্তা জানান, সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তিনি মা ও মনি জুয়েলার্সের ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান থেকে মটরসাইকেলযোগে উপজেলার বিল্লগ্রামের নিজবাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। পথিমধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সম্মুখে পৌঁছলে বরিশালগামী মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-গ-১৪-৭০৫৪) তার পথরোধ করে। এসময় মাইক্রোবাস থেকে ৪/৫ জন ব্যক্তি নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাকে হ্যান্ডক্যাপ পরানোর চেষ্ঠা করে তার ব্যবহৃত মটরসাইকেলটি মাইক্রোবাসে উঠানোর চেষ্ঠা চালায়। এ সময় ব্যবসায়ী সোহেল ডাক চিৎকার শুরু করলে তাকে মারধর করে আহত করা হয়। ইতোমধ্যে বরিশালগামী একটি পুলিশের পিকআপ সাইলেন বাঁজিয়ে আসায় ভূয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ের অপহরনকারীরা ব্যবসায়ী ও তার মটরসাইকেলটি ফেলে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে।

গৌরনদী থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এস.আই) সোলায়মান মাহমুদ জানান, ওইদিন রাত সাড়ে দশটার দিকে পৌর এলাকার হরিসেনা মহল্লায় পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি মাইক্রোবাস দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাইক্রোবাসটি উদ্ধারসহ স্থানীয়দের সহায়তায় ওই মহল্লায় ব্যাপক তল্লাশী চালিয়ে মাইক্রোবাসের চালক মামুন মীরকে (৩০) গ্রেফতার করলেও অন্যান্য অপহরকারীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত মামুনের বাড়ি পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার কাঁচিপাড়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের মৃত মানিক মীরের পুত্র। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী সোহেল গোমস্তা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »