আর্কাইভ

বরিশালে সংখ্যালঘু পরিবারের দু’কোটি টাকার সম্পত্তি দখল

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার প্রত্যন্ত খাঞ্জাপুর গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদারের প্রায় দু’কোটি টাকা মূলের সম্পত্তি দখল করে নিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী কতিপয় আওয়ামীলীগ ও বিএনপি নেতারা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সরেজমিনে স্থানীয় লোকজন, ভূক্তভোগী পরিবার ও দখলদারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ওই গ্রামের জগদ্বিশ চন্দ্র মিত্র খাঞ্জাপুর মৌজার বিভিন্ন দাগ ও খতিয়ানে ৪ একর ৫৬ শতক জমি রেখে মারা যান। মৃত্যুর পর তার পুত্র রাধা রমন মিত্র ও বিমল চন্দ্র মিত্র পৈত্রিক সূত্রে ৪ একর ৫৬ শতক জমির মালিক হন। রাধা রমন মিত্রের কাছ থেকে স্থানীয় প্রভাবশালী খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ শাহজাহান খান, ইউনিয়ন বিএনপির নেতা আলী আকবর দুটি দলিলে ১ একর ১২ শতক জমি ক্রয় করেন। পরবর্তীতে আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান খান ও বিএনপি নেতা আলী আকবর তার সহযোগী বিএনপি নেতা মোস্তফা সরদার, মামুন পাইকসহ অন্যান্যরা ২০১২ সনের ফেব্র“য়ারি মাসে জোরপূর্বক বিমলের বসত ভিটার ২২শতক সম্পত্তি রেখে পুরো ৪ একর ৩৪ শতক জমি দখল করতে যায়। এ সময় নিরুপায় বিমল গৌরনদী সহকারী জজ আদালতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করেন। আদালত ওই বছরের ১৯ মার্চ বিমলের ৩ একর ২২ শতক জমির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। নিষেধাজ্ঞা জারির পর ওই জমি দীর্ঘদিন খালি অবস্থায় ছিলো।

বিমল মিত্র অভিযোগ করেন, এরইমধ্যে থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে অবৈধ দখলদার আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান খান ও বিএনপি নেতা আলী আকবর তাদের দলবল নিয়ে অতিসম্প্রতি জোরপূর্বক জমি দখল করে নেয়। তিনি আরো অভিযোগ করেন, আওয়ামীলীগ ও বিএনপি নেতারা আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সম্পত্তি দখল করার বিষয়ে প্রতিবেদন রিপোর্ট পাওয়ার জন্য থানায় লিখিত আবেদন করা সত্বেও পুলিশ রিপোর্ট না দিয়ে তাকে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি করে আসছে। খাঞ্জাপুর গ্রামের শামছুল হক সরদার, আতাউর রহমানসহ অনেকেই জানান, আওয়ামীলীগ ও বিএনপির নেতারা ১ একর ২২ শতক জমির দলিল নিয়ে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে ৪ একর ৩৪ শতক সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করে নিয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় দুই কোটি টাকারও অধিক।

দখলের অভিযোগ অস্বীকার করে আ’লীগ নেতা শাহজাহান খান ও বিএনপি নেতা আলী আকবর বলেন, ক্রয় সূত্রে আমরা ওই জমির মালিক। গায়ের জোরে আমরা কারো সম্পত্তি দখল করিনি।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »