ভুল আইনে বিচার : ভুক্তভোগীকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানের নির্দেশ

ধর্ষণের এক মামলায় ১৫ বছর আগে ‘ভুল আইনে’ বিচার করায় ভোলার চরফ্যাশনের আব্দুল জলিলকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন  হাইকোর্ট।

বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে জলিলের করা জেল আপিল নিষ্পত্তি করে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর বিচারপতি এ এফ এম আবদুর রহমানের একক বেঞ্চ এই রায় দেয়।

আজ ‍বুধবার ওই রায় প্রকাশিত হওয়ার পর আদালতের আদেশের বিস্তারিত জানা যায়।

হাইকোর্টের রায়ে বলা হয়, জলিলকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বিচার করে তার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। ফলে জলিল বিচারের বদলে অবিচারের শিকার হয়েছে। তাই জলিলের দণ্ডাদেশ বাতিল করা হলো। তবে জীবন থেকে ১৪ বছর পার হওয়ায় আদালত বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ কর্তৃক আসামি আব্দুল জলিলকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ প্রদান করাই যুক্তিযুক্ত।

তাই আদালত আসামি আব্দুল জলিলের জীবনের ১৪টি বছরের বিনিময়ে রাষ্ট্রপক্ষকে দণ্ডপ্রাপ্ত জলিলকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করার আদেশ প্রদান করছে। রায়ে আদালত বলেছে, যেহেতু দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আবদুল জলিলের দণ্ডাদেশ বাতিল করা হলো, সেহেতু অন্য কোনো মামলায় গ্রেফতার না থাকলে আবদুল জলিলকে অবিলম্বে মুক্তি প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হলো।

জানা যায়, ২০০১ সালের এক ধর্ষণের ঘটনায় আব্দুল জলিলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে বিচারিক আদালত। সে সময় তার বয়স ১৫ বছর হলেও ওই মামলার বিচার চলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে দণ্ডপ্রাপ্ত আবদুল জলিল আপিল করেন। কিন্তু হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ আপিল নিস্পত্তি করতে গিয়ে দেখেন, ঘটনার সময় জলিলের বয়স ছিল ১৫ বছর। মামলার চার্জশিটেও তা উল্লেখ ছিল। ফলে আদালত ওই সাজা বাতিল করে নাবালক হিসেবে জলিলের বিচার পুনরায় শিশু আদালতে করতে ভোলার জেলা দায়রা জজকে নির্দেশ দেন।

লক্ষ্মীপুরে দুর্বৃত্তের গুলিতে দুই সহোদর নিহত

লক্ষ্মীপুরে দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই সহোদর নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে বশিকপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- পূর্ব বশিকপুর গ্রামের শরিফ উদ্দিনের ছেলে ইসমাইল হোসেন (৪৫) ও ইব্রাহীম হোসেন (৪২)।

ইসমাইল ও ইব্রাহীম আওয়ামী লীগের কর্মী ছিলেন বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী কৃষক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হিজবুল বাহার।

স্থানীয়রা জানান, নিহত দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানোর অভিযোগ রয়েছে। বছর কয়েক আগে ইসমাইল ও ইব্রাহীম বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। তাঁরা এলাকায় একটি বাহিনী গড়ে তোলেন। ওই বাহিনীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী তৎপরতার অভিযোগ রয়েছে।

বশিকপুর গ্রামের চায়ের দোকানদার আনোয়ার হোসেনের ভাষ্য, আজ বেলা ১১টার দিকে ইসমাইল ও ইব্রাহীম তাঁর দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় সেখানে সিএনজিচালিত দুটি অটোরিকশা আসে। অটোরিকশা থেকে মুখোশধারী কয়েকজন যুবক নেমে দুই ভাইকে এলোপাতাড়ি গুলি করে পালিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য, ঘটনার পর তাঁরা স্থানীয় দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দেন। পুলিশ এসে দুজনকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ কুমার শাহাজী বলেন, হাসপাতালে নেওয়ার পর গুলিবিদ্ধ দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। তাঁদের লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত হবে।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, নিহত দুজনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুলির চিহ্ন রয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুর রহমান জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বশিকপুর গ্রামের বৈদ্দেরবাড়ির মোড় এলাকায় দুভাইকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। তাদের উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুভাইকে মৃত ঘোষণা করেন।

তাৎক্ষণিকভাবে কে, কারা, কেন তাদের হত্যা করেছে তা জানা যায়নি বলেও জানান তিনি।

সারাদেশে বজ্রপাতে ৩০ জনের মৃত্যু

দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাতের সময় বজ্রপাতে বৃহস্পতিবার ৩০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

ঢাকা: রাজধানী’র যাত্রাবাড়ীর কোনোপাড়া কাঠেরপুল এলাকায় বজ্রপাতে দুই যুবক মারা গেছেন। এসময় আরও এক যুবক আহত হয়েছেন। সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মাদারীপুর: মাদারীপুরের রাজৈরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি বৃস্থপতিবার বিকালে রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের বড়খোলা গ্রামে ঘটেছে ।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কদমবাড়ী ইউনিয়নের বড়খোলা গ্রামের মহানন্দ রায়ের মেয়ে আখি রায় ঘরে বসে টেলিভিশন দেখার জন্য বিদ্যুৎ লাইন সংযোগ দিতে গেলে হাঠৎ বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে পড়ে সে। তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় রাজৈর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। আখি কদমবাড়ী ইউনিয়ন মহাবিদ্যালয়ের মানবিক বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

নারায়ণগঞ্জ: মেঘনা নদীতে মাছ ধরার সময় বজ্রপাতে বলরাম দাস (৫০) নামে এক জেলের মৃত্যু হয়েছে। তিনি নরসিংদীর সদর উপজেলার দোয়ানী গ্রামের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার নরসিংদী ও আড়াইহাজারের সীমানা এলাকায় মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

পাবনা: পাবনার সুজানগর উপজেলার আমিনপুর থানায় পৃথক স্থানে ও চাটমোহরে বজ্রপাতের ঘটনায় ২ স্কুল ছাত্র-ছাত্রীসহ ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন, উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণচর গ্রামের মৃত রইছ সরদারের ছেলে শহীদ সর্দার (৫৮), সোনাতলা গ্রামের ইউসুফ সেখ ওরফে এছা সেখ এর ছেলে ও বোয়ালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্র হীরা (১৩) এবং রানীনগর ইউনিয়নর বাঘলপুর গ্রামর ময়েন সরদার (৬৫) এবং তার নাতনী মৃত শিরু সরদারের মেয়ে ও বাঘলপুর উচ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী শিখা খাতুন (১৩)। এছাড়াও জেলার চাটমাহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউনিয়নের বাউদকান্দি গ্রামের মল্লিক পাড়ার ইমান প্রামানিকর ছেলে ফজলুর রহমান (৪০) এবং মৃত মহির খানের ছেলে ছকির উদ্দিন (৭০) মারা গেছেন মাঠে গিয়ে বজ্রপাতে।

নাটোর: নাটোরের লালপুর উপজেলায় বজ্রপাতে দুইজন নিহত ও দুইজন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, লালপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে বজ্রপাতে মোবারক হোসেন (৩৫) ও উত্তর লালপুর গ্রামের সাহারা বানুর (৪৮)।

সিরাজগঞ্জ: উল্লাপাড়া ও রায়গঞ্জে বজ্রপাতে মাদরাসা শিক্ষকসহ ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন হাসিল উল্লাপাড়া উপজেলার সিমলা গ্রামের আব্দুল লতিফ (৩০), একই উপজেলার বেতুয়া গ্রামের শাহেনূর (২৮), রায়গঞ্জ উপজেলার হাসিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক বেতগাড়ী গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে আনোয়ার হোসেন(৪৫), একউ পজেলার পাঙ্গাসী ইউনিয়নের চকনূর গ্রামের নূরনবী সরকারের মেয়ে নুপুর খাতুন (৮) ও বৈকন্ঠপুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে সুলতান মাহমুদ (৩৫)।

সন্ধ্যায় বজ্রপাতে নিহতেরা মাঠে ধান কাটা, গরু আনতে ও আম কুড়াতে গিয়ে তারা বজ্রপাতে মৃত্যুবরণ করেন।

রাজশাহী: রাজশাহীর মোহনপুরে বজ্রপাতে ৪ জন মারা গেছেন ও আরো ৪ জন আহত হয়েছেন। বজ্রপাতে যারা মারা গেছেন তারা হলেন ঘাষিগ্রাম ইউনিয়নের আতা নারায়ণপুর গ্রামের শামসুদ্দিনের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (২৮), হাততৈড় গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে আব্দুল আজিজ (৫০) ও ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের শ্রী সৈত চন্দ্র (৩০)।

গাজীপুর: জেলার কাপাসিয়ায় বজ্রপাতে ২জন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

কিশোরগঞ্জ: বাজিতপুর ও হোসেনপুরে বজ্রপাতে কলেজছাত্রসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে পৃথক দু’টি ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো, বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর ইউনিয়নের বাহেরনগর গ্রামের মঞ্জু মিয়ার ছেলে স্বপন মিয়া (২০), একই উপজেলার পিরিজপুর ইউনিয়নের কইকুরী গ্রামের আবু বক্করের স্ত্রী রিজিয়া বেগম (৫৬), হোসেনপুর উপজেলায় আড়াইবাড়িয়া গ্রামের রহমত আলীর ছেলে ও হোসেনপুর ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের ছাত্র শরীফুল ইসলাম শুভ (১৮) এবং তাড়াইল উপজেলার জাওয়ার ইউনিয়নের ইশাবশর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী মমতা বেগম (৪৫)।

পিরোজপুর: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার দাউদখালী ইউনিয়নের বড় হারজি গ্রামে আজ বিকেলে বজ্রপাতে ইউনুস সিকদার নামে একজন কৃষক নিহত ও আয়েশা বেগম নামে একজন গৃহিনী আহত হয়েছেন।

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার প্রতাপপুর গ্রামে বজ্রপাতে হাবিব মিয়া (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় প্রতাপপুর গ্রামের পাশের হাওরে এ অপমৃত্যুর ঘটনা ঘটে। নিহত হাবিব ওই গ্রামের শেখ তাজুল মিয়ার ছেলে।

নীলফামারী: জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে লাল বিবি (৪০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের ফুলেরঘাট গ্রামে বৃহস্পতিবার দুপুরে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত লাল বিবি উপজেলার মাগুড়া ফুলেরঘাট গ্রামের আলম হোসেনের স্ত্রী।

‘দরজা বন্ধ করে তনুকে খুন করা হয়’

(অমিত মজুমদার, কুমিল্লা) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনুকে দরজা বন্ধ করে খুন করা হয় বলে দাবি করে তনুর মা আনোয়ারা বেগম বলেছেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে তনু সেনানিবাসে পড়াশুনা করেছে। তাকে সবাই চিনত।’ তার অভিযোগ ‘সেনাবাহিনীর অনুষ্ঠানে গান না গেয়ে পিকনিকে যাওয়ায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার চুল কেটে দেওয়া হয়েছে।’

মঙ্গলবার বিকালে তনুর পরিবারকে সিআইডি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের ফাঁকে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। সেসময় তিনি আরো বলেন, ‘আমার মেয়েকে কারা খুন করেছে সেনাবাহিনীর সবাই জানে তবু কেউ কিছু বলছে না। আমরা এতদিন  চুপ ছিলাম প্রশাসনের আশ্বাসে কিন্তু হত্যাকাণ্ডের  দেড় মাসের বেশি হয়ে যাওয়ায় প্রশাসনের উপর আস্থা রাখতে পারছি না।’

তনুর মা আনোয়ারা বেগম আরো বলেন, আমার তনু বলতো আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করবেন না, তেমনি আমি আজ আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করি না । তাই বলছি সেনাবাহিনীর সদস্যরা তনুকে হত্যা করেছে। তনুর শরীর ক্ষত-বিক্ষত ছিল। এ কথা মনে পড়লে আমি অসুস্থ হয়ে যাই,  প্রতি রাতে ঘুমের ওষুধ না খেলে ঘুম হয় না।

এদিকে তনুর বাবা অভিযোগ করে বলেন, ‘তনু হত্যাকাণ্ডের পর কেউ আমাকে একটু শান্তনা ও দেয়নি কিন্তু এখনো আমাদের হয়রানি করা হচ্ছে। সেনানিবাসে প্রবেশের পরিচয়পত্রের কার্ড থাকার পরও নানা কথা শুনতে হচ্ছে । আত্মীয়-স্বজন আসলে তাদের ঘন্টাব্যাপী বসিয়ে রাখা হয়। গ্রামের বাড়িতে আমাদের থাকতে দেওয়া হয় না। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এখনো আমাদের অনেকে সন্দেহ করছে। যাদের বাসায় গিয়ে আমার মেয়ে আর ফিরে নাই তারা জানে আর আল্লাহ জানে আমার তনুকে কারা হত্যা করেছে। ’

মঙ্গলবার বিকাল ৪ টা থেকে সিআইডি ঢাকার সিনিয়র বিশেষ পুলিশ সুপার আবদুল কাহহার আকন্দের নেতৃত্বে সিআইডি’র ঢাকার একটি টিম তনুর বাবা ইয়ার হোসেন, মা আনোয়ারা বেগম, ভাই আনোয়ার হোসেন রুবেল, খালাতো বোন লাইজু জাহানকে সিআইডি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এর আগে তনুর বান্ধবী সঙ্গীত শিল্পী শান্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিআইডি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে  সিআইডি কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রনব কুমার রায় বলেন, সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তনুর মা-বাবা সহ তাদের পরিবারকে জিজ্ঞসাবাদ করার জন্য সিআইডি কার্যালয়ে আনা হয়েছে।

এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সকাল এগারোটায় ডেকে আনা হয়েছে তনুর স্কুল ও কলেজ জীবনের দুই সহপাঠি শামীম ও মাহমুদুলকে।তবে এখনও তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি।

উল্লেখ্য,  গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের অলিপুর এলাকার কালো ট্যাংকি সংলগ্ন জঙ্গল থেকে তনুর লাশ উদ্ধার করা হয়। হত্যাকাণ্ডের  ৫০ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

জিপিএ-৫ পাওয়া অনিক ও হৃদয়কে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়া ফেনী সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র মিনহাজুল ইসলাম অনিক ও শাহরিয়ার হৃদয়কে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন বার্তা পেয়ে অনিক ও হৃদয় আবারো অভিভূত ও কৃতজ্ঞ।

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন বৃহস্পতিবার এ কথা জানান।

এর আগে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি বিএনপি-জামায়াতের সহিংস জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলনে বোমা হামলায় আহত এই দুই ছাত্র প্রধানমন্ত্রীর তদারকিতে চিকিৎসায় তারা সুস্থ হয়ে ওঠে এবং জীবন সংগ্রামে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা খুঁজে পায়।

শেখ হাসিনার সহৃদয় চিকিৎসা সহায়তায় সুস্থ হয়ে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে অনিক ও হৃদয় জিপিএ-৫ লাভ করে। তাদের এই কৃতিত্বের সংবাদ শুনে আনন্দে আপ্লুত হয়ে অনিক ও হৃদয়কে অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন শেখ হাসিনা।

এই শুভেচ্ছা বার্তা পেয়ে আবেগাপ্লুত কৃতি এই দুই শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবার প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তাদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এই সঙ্গে তারা মহান আল্লাহর দরবারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্থ ও সফল জীবন কামনা করেন।

২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি দেশব্যাপী চলছিলো বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ, সন্ত্রাস আর সহিংস আন্দোলন চলছিলো তাদের পেট্রোল বোমা ও অগ্নি-সস্ত্রাসের ত্রাস। দেশ জুড়ে হাজার হাজার মানুষ তাদের পেট্রোল বোমায় হতাহতের শিকার হন।

এ নির্মম আন্দোলনের নিষ্ঠুরতা থেকে রেহাই পায়নি এই দুই পরীক্ষার্থী। কোচিং থেকে বাসায় ফিরছিলেন। পথে তারা শিকার হন বিএনপি-জামায়াতের বোমা সন্ত্রাসের। চোখে মাথায় মারাত্মক আঘাত পান অনিক ও হৃদয়। পুরো পরিবার পড়ে এক অনিশ্চয়তার মধ্যে। একদিকে সামনে এসএসসি পরীক্ষা, অন্যদিকে চিকিৎসার ব্যয়ভার। এ সময় এই দুটি পরিবারের মধ্যে পথের দিশারী হয়ে আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জামায়াত-বিএনপির সহিংসতার শিকার আরো হাজার হাজার অসহায় পরিবারের মতো তাদেরও চিকিৎসার ব্যয়ভার নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তাদের চিকিৎসার পুরো বিষয়টি তদারকি করেন তার কার্যালয়ের পরিচালক ডা. জুলফিকার লেনিন। তিনি জানান, প্রথমে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পরে চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট এবং এরপর মাদ্রাজের শঙ্কর নেত্রনালয়ে অনিক ও হৃদয়ের চিকিৎসা করানো হয়। চিকিৎসার জন্য তিনবার তাদের মাদ্রাজের শঙ্কর নেত্রালয়ে পাঠান। আহত থাকার কারণে ২০১৫ সালে আর তাদের এসএসসি পরীক্ষা দেয়া হয়নি। এবার তারা দু’জনই এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

আজ সকালে হৃদয়, অনিক এবং তাদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন ডা. জুলফিকার লেনিন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর খুশি হওয়ার সংবাদ ও শুভেচ্ছা বার্তা তাদের কাছে পৌঁছে দেন। তারাও লেনিনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে তাদের কৃতজ্ঞতা ও আনন্দ এবং তার সুস্বাস্থ্য ও সাফল্য কামনা করেন।

খবর-বাসস।

মেধাবী ছাত্রী সুগন্ধাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সাংবাদদাতাঃ বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বারপাইকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর মেধাবী ছাত্রী সুগন্ধা বালার একটি কিডনি বিকল হয়ে গেছে। যে কারনে দিনে দিনে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে। ইতোমধ্যে তার দরিদ্র দিন মজুর পিতা ঋনগ্রস্থ হয়ে মেয়ের চিকিৎসা করাতে দিশেহারা হয়ে  পরেছে। এখন প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা। মেয়ের চিকিৎসার জন্য পিতা উত্তম বালা ও মা সুচীত্রা বালা দেশের ও বিদেশী উদার বিত্তবানদের এগিয়ে আসার বিনয়ী আহ্বান জানান। সাহ্যা পাঠানোর কৃষি ব্যাংক আগৈলঝাড়া শাখা বরিশাল, সঞ্চয়ী হিসাব নং ১৪৭৪ প্রয়োজনেঃ (প্রধান শিক্ষক )০১৭১২৩৬৭৮৪৮/ (প্রতনিধি (আগৈলঝাড়া)০১৭১৪৮৮৯০৭০/(সুগন্ধার বাবা)০১৭০৬৬৯৫৬৩৮

পবিত্র শবে বরাত ২২ মে

দেশের আকাশে কোথাও শনিবার সন্ধ্যায় পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। এজন্য রোববার রজব মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হচ্ছে। আগামী সোমবার থেকে শাবান মাস গণনা শুরু হবে। সে হিসেবে আগামী ২২ মে দিবাগত রাতে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে।

সন্ধ্যায় বায়তুল মুকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. আমজাদ আলী।

শাবান মাসের ১৫তম রাতে (১৪ শাবান দিবাগত রাত) শবে বরাত পালিত হয়। সেই হিসেবে আগামী ২২ মে দিবাগত রাতই শবে বরাতের রাত। শবে বরাতের পরের দিন বাংলাদেশে নির্বাহী আদেশে সরকারি ছুটি।

শাবান মাস শেষেই মুসলমানদের সবেচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদের আনন্দ বারতা নিয়ে শুরু হয় সিয়াম সাধনার মাস রমজান।

যুগ্ম সচিব মো. আমজাদ আলী জানান, সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর আনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী শনিবার বাংলাদেশের আকাশে ১৪৩৭ হিজরির শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি।

‘ভাগ্য রজনী’ হিসেবে পরিচিত শবে বরাতের তাৎপর্যপূর্ণ রাতটি বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের মুসলমানরা নফল নামাজ, কোরআন তেলাওয়াতসহ ইবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে কাটিয়ে থাকেন।তবে ইসলামী চিন্তাবিদদের মধ্যে কেউ কেউ এই দিনটি বিশেষভাবে পালনকে শরিয়তসম্মত মনে করেন না।

কারাগারে নিজামীর সঙ্গে পরিবারের ছয় সদস্যের সাক্ষাৎ

গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর সঙ্গে তার পরিবারের ছয় সদস্য সাক্ষাৎ করেছেন।

শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে নিজামীর সঙ্গে দেখা করতে যান তারা।

কাশিমপুর কারাগার-২-এর জেল সুপার প্রশান্ত কুমার জানান, নিজামীর পরিবারের ছয় সদস্য তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন নিজামীর স্ত্রী, দুই ছেলে, দুই পুত্রবধূ ও এক নাতি।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ নিজামীর আপিলের রিভিউ খারিজ করে তার মৃত্যুদণ্ডের আদেশ বহাল রাখেন।

বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

এর আগে, বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় পাবনায় হত্যা, ধর্ষণ এবং বুদ্ধিজীবী গণহত্যার দায়ে ২০১৪ সালের ২৯ অক্টোবর নিজামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। এর বিরুদ্ধে নিজামী আপিল করলে গত ৮ ডিসেম্বর দুইপক্ষের শুনানি শেষ হয়। ওইদিনই রায় ঘোষণার জন্য ৬ জানুয়ারি দিন ঠিক করে দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

গত ৬ জানুয়ারি নিজামীর ফাঁসির আদেশ বহাল রেখে রায় দেয় সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগ। নিজামীকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের ৪টি অভিযোগে দেওয়া ফাঁসির রায়ের ৩টি ও ৪টি অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া রায়ের মধ্যে ২টিকে বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

এরপর গত ১৫ মার্চ আপিল বিভাগের রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশিত হয়। ১৬ মার্চ নিজামীকে কারাগারে মৃত্যুপরোয়ানা পড়ে শোনানো হয়। ২৯ মার্চ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের ফাঁসির রায়ের রিভিউ (রায় পুর্নবিবেচনা আবেদন) আবেদন করেন তিনি।

রিভিউ শুনানির দ্রুত দিন ধার্য চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করেন। ১০ এপ্রিল আসামি পক্ষের সময় আবেদনের ভিত্তিতে পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদনের শুনানি পিছিয়ে ৩ মে ধার্য করে আদালত।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ নিজামীর আপিলের রিভিউ খারিজ করে চূড়ান্ত বিচারেও ফাঁসির দণ্ড বহাল রাখেন।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় নিজামীর আইনজীবী এস এম শাহজাহান জানান, নিজামী প্রাণভিক্ষা চাইবেন কি না, এটি একান্তই তার নিজস্ব ব্যাপার সে বিষয়ে নিজামী নিজেই সিদ্ধান্ত নেবেন।

নালিতাবাড়ীতে ট্রাক চালকের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৬

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ট্রাক চালকের উপর হামলার ঘটনায় ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় শেরপুর শহর থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- বাপ্পি (২২), আ. মতিন (২৮), আল আমিন (২৫), রনি (২৫), মানিক মিয়া (৩৬) ও নাজমুল (৩৪)। গ্রেফতার হওয়া ৬ জনই নালিতাবাড়ীর বাসিন্দা।

প্রসঙ্গত, গত ৪ মে উপজেলার জামিরাকান্দা রাবারড্যম এলাকায় রুবেল মিয়া (২৭) নামে এক ট্রাকচালকের স্থানীয়রা চাঁদা দাবি করেন। চালক রুবেল মিয়া চাঁদা দিতে স্বীকার করলে এ নিয়ে যুবকদের সাথে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে যুবকেরা চালক রুবেল মিয়ার উপর মারধর ও কিরিচ দিয়ে আঘাত করেন।

এ ঘটনায় ট্রাকচালক রুবেল মিয়া বাদী হয়ে ১০ জন নামীয় এবং ১০-১৫ জন অজ্ঞাতনামে নালিতাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফসিহুর রহমান ৬ জন গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হামলার পর থেকে নালিতাবাড়ীতে ট্রাকচালকরা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট পালন করে আসছেন।

রোববারের এইচএসসি পরীক্ষা পেছাল একদিন

জামায়াতের ডাকা হরতালের কারণে নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে চলমান এইচএসসি ও সমমানের রোববার অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষাগুলো একদিন পিছিয়ে সোমবার অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন আন্তঃবোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মো. মাহবুবুর রহমান।

তিনি বলেন, এখন নতুন তারিখে অনুষ্ঠিত হবে ওইদিনের পরীক্ষাগুলো। এর মধ্যে আট বোর্ডের অধীন ওই দিনের এইচএসসি পরীক্ষা হবে পরদিন ৯ মে। সময় আগের মতোই একই সময়ে অনুষ্ঠিত হবে।  কারিগরি বোর্ডের পরীক্ষা হবে ৯ তারিখ সকালে। আর মাদ্রাসা বোর্ডের ৮ মের পরীক্ষা হবে ২২ মে।

ওই দিন এইচএসসিতে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য দ্বিতীয় পত্র, পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয় পত্র, ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা দ্বিতীয় পত্র, ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ দ্বিতীয় পত্র এবং ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা ছিল।

৮ মে আলীমে রসায়ন প্রথম পত্র (তত্ত্বীয়), অর্থনীতি প্রথম পত্র (অতিরিক্ত বিষয়), পৌরনীতি প্রথম পত্র (অতিরিক্ত বিষয়) এবং পৌরনীতি ও সুশাসন প্রথম পত্রের (অতিরিক্ত বিষয়) পরীক্ষা ছিল।

এছাড়া কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসি ব্যবসায় ব্যবস্থাপনায় ব্যবসায় গণিত ও পরিসংখ্যান (নতুন সিলেবাস) এবং ব্যবসায় গণিত ও পরিসংখ্যান (পুরাতন সিলেবাস) পরীক্ষা ছিল।

এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় সারাদেশের ১২ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীর রিভিউ (পুনর্বিবেচনা) আবেদন খারিজ করে দিয়ে ফাঁসির রায় বহাল রাখার প্রতিবাদে রোববার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হরতাল ডেকেছে জামায়াতে ইসলামী।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ ফাঁসির রায় বহাল রাখার পর এক বিবৃতিতে এই হরতালসহ অন্যান্য রাজনৈতিক কর্মসূচির ঘোষণা দেয় জামায়াতে ইসলামী।

শিবচরে পদ্মাসেতুর প্রকল্প এলাকায় নতুন বাড়ি তৈরির হিড়িক!

পদ্মাসেতু রেল সংযোগ প্রকল্পে জমি অধিগ্রহণে প্রাথমিক অবস্থাতেই বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জেলার শিবচর উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের বড় কেশবপুর মৌজার অধিগ্রহণ করা জমিতে জমির মালিকরা নানা অনিয়ম ও চতুরতার আশ্রয় নিয়ে নতুন-নতুন ঘরবাড়ি তৈরি ও জমির শ্রেণি পরিবর্তন করে জালিয়াতির মাধ্যমে সরকারের কোটি-কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

এসব করা হচ্ছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রভাবশালী মহলের ছত্র-ছায়ায়। হাজার টাকা ব্যয় করে লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার মহোৎসব চলছে প্রকল্প এলাকায়।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রেল লাইনের ভুমি অধিগ্রহণের জন্য চলতি বছর ১৩ জানুয়ারি মন্ত্রনালয় থেকে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়। প্রাথমিকভাবে শিবচর উপজেলার বিভিন্ন মৌজার ২১৩.২৮১৫ একর জমি অধিগ্রহণের জন্য নির্ধারণ করা হয়। জমি অধিগ্রহণের জন্য ৩ ধারার নোটিশ প্রদান করা হয় সম্ভাব্য ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে। পরবর্তীতে যৌথ তদন্ত শেষে করা হয়েছে। বর্তমানে ৬ ধারা চলমান রয়েছে।

Poultry-Farm

গড়ে তোলা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের খামার।

সরেজমিন অনুসন্ধান করে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার উপর দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের পদ্মাসেতু সংযোগ প্রকল্পে রেলপথ নির্মাণের জন্য ভুমি অধিগ্রহণ কাজ শুরু করেছে কর্র্তৃপক্ষ। অধিগ্রহণের প্রাথমিক কাজ শুরুর পর থেকেই স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালী নেতা ও প্রশাসনের অসাধু ছোট কর্তা বড় কর্মকর্তাদের যোগ-সাজোসে অধিগ্রহণের জন্য নির্ধারিত জমির শ্রেণি পরিবর্তন ও নতুন ঘর-বাড়ি তৈরি করে সরকারের কোটি-কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে তৎপরতা শুরু করে।

বর্তমানে পদ্মা সেতুর রেল লাইন সংযোগ প্রকল্পে অধিগ্রহণের জন্য প্রস্তাবিত জমিতে শ্রেণি পরিবর্তন করে নতুন করে ঘর-বাড়ি তৈরির হিড়িক পড়েছে। প্রায় প্রতিদিনই তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন ঘর-বাড়ি। ৫ লাখ টাকা ব্যয় করে ৫০ লাখ টাকা পাওয়ার আশায় সক্রিয় চক্রটি অত্যন্ত তৎপর। ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকায় প্রায় ২ শতাধিক নতুন ঘর-বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। যার  সম্ভাব্য মূল্য ১০ কোটি টাকা। অথচ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে ২০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবির প্রস্তাবনা দাখিলের পাঁয়তারা চলছে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ক্ষতিপুরণের বিল দাখিল করা হবে ভিন্ন-ভিন্নভাবে, যাতে বড় অংকের টাকা কর্তৃপক্ষের চোখে না পড়ে। আর এসব কৌশল শিখিয়ে দিবে এল.এ. শাখার কেরানিরা, যারা রেলপথ প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। যাদের বিরুদ্ধে পদ্মাসেতু প্রকল্পের ক্ষতিপুরণের বিল পরিশোধের সময় ১৫% নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল, তাদের কেউ-কেউ এখনও এল.এ. শাখায় বহাল তবিয়তে।

অনুসন্ধান করতে গিয়ে আরও দেখা গেছে, কোথাও মাস তিনেক আগে ফসলি জমি ছিল সেখানে নির্মাণ করা হয়েছে কাঁচাবাড়ি, আবার কোথাও দালান কোথাও টিনশেড বাড়ি। ফসলি জমিতে পুকুর কেটে তৈরি করা হয়েছে মৎস খামার। চোখে পড়ে মৎস্য খামারের সাইনবোর্ড। অথচ মাছের খামারে নেই কোন প্রজাতির মাছ এমনি পুকুরে পানিও নেই। আবার কোথাও নতুন ঘর তৈরি করে মুরগির খামারের সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে দিলেও খামারে নেই কোনো প্রজাতির মুরগি।

অভিযোগে জানা গেছে, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পে অধিগ্রহণ করার নির্ধারিত ফসলি ও জলাবদ্ধ পতিত জমি শ্রেণি পরিবর্তন করে ভিটা, আবার কাঁচা বাড়ি-ঘরকে পাকা বাড়ি-ঘরে কিংবা টিনশেড ভবনকে পাঁচতলা ফাউন্ডেশন তৈরি করা হয়েছে। এতে সরকারের কত কোটি টাকা লোপাট হবে তার হিসেব পাওয়া যাবে না। আর এতে লাভবান হবে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালীমহল, জমি এবং ঘর-বাড়ির সুবিধাবাদী মালিকরা।

padma-bridge-side
বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে চলছে এই কর্মযজ্ঞ।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মো. কামাল উদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ৩ ধারা নোটিশের পর যদি তারা ৪০ তলা বিল্ডিংও করে তাহলে তারা ক্ষতিপূরণ পাবে না। ৩ ধারা নোটিশের পূর্বে আমরা ভিডিও করে রেখেছি। ওই ভিডিও অনুযায়ী ক্ষতি পূরণ পাবে।

পদ্মাসেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এস.কে চক্রবর্তীর কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘চলতি বছর ১৩ জানুয়ারির পরে ৩ ধারা নোটিশের পূর্বে অধিগ্রহণকৃত জায়গার ভিডিও করে রাখা হয়েছে। তা দেখেই ক্ষতিপূরণ বিল পরিশোধ করা হবে। অযৌক্তিক কোন ধরণের দাবি গ্রহণ করা হবে না।’

গাড়িতে সাংবাদিক, পুলিশ, অ্যাডভোকেট স্টিকার নিষিদ্ধ

প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট স্টিকার বাদে সাংবাদিক, পুলিশ এবং অ্যাডভোকেট স্টিকার লাগানো যাবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

বুধবার সকালে ডিএমপি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, অপরাধীরা সংবাদপত্রের, পুলিশের এবং অ্যাডভোকেটের আলগা স্টিকার ব্যবহার করে পার পেয়ে যাচ্ছেন। তারা আলগা স্টিকার ব্যবহার করছেন, সেটি করা যাবে না। যারা প্রকৃত সাংবাদিক তাদের প্রতিষ্ঠানের লোগোযুক্ত-স্টিকার ব্যবহার করতে হবে।

এছাড়া রাজধানী ঢাকায় গাড়িতে বেআইনিভাবে হাইড্রোলিক হর্ন যারা ব্যবহার করছেন তাদের সেটি খুলে ফেলতে নির্দেশ দেন তিনি। নয়তো কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন ডিএমপি কমিশনার।