গৌরনদী সংবাদ

পরিচালক ও মহাপরিচালকের নির্দেশ সত্যেও বহাল তবিয়তে একই স্কুলের ২ শিক্ষক

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) ও মহাপরিচালকের (অতিরিক্ত সচিব) নির্দেশ সত্যেও বরিশালের গৌরনদী উপজেলার শাহজিরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আশরাফ মাহমুদ ও একই স্কুলে কর্মরত তার স্ত্রী বেগম রোজিনা আক্তারের  বদলীর আদেশ দীর্ঘ দিনেও কার্যকর হচ্ছেনা। তাই প্রশ্ন উঠেছে প্রধান শিক্ষক মোঃ আশরাফ মাহমুদের খুঁটির জোর কোথায়?

শাহজিরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ সাইদুর রহমান অভিযোগ করেন, প্রধান শিক্ষক মোঃ আশরাফ মাহমুদের বাড়ী স্কুলের সাথেই। তিনি সর্ব্বহারা জিয়া গ্ররুপের আঞ্চলিক কমান্ডার ও বিএনপি নেতা মোঃ জাকির হেসেন সান্টুর ছোটভাই। স্থানীয় ও প্রভাবশালী হওয়ার কারণে আশরাফ মাহমুদ ও তার স্ত্রী মিলে স্কুলে প্রাইভেট পড়ানোর জন্য ক্লাশ খুলে বসেছেন। তারা ওই বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন যাবত চাকুরী করছেন এবং উভয়ই নিয়মিত স্কুলে আসেননা। তাদের ভয়ে অন্যান্য ৪ শিক্ষক সর্বদা তটস্থ থাকেন। এ কারণে স্কুলের শিক্ষার মানের চরম অবনতি হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তারা স্কুলে যোগদানের আগে ৫ম শ্রেনীতে প্রতিবছর বৃত্তি পেলেও যোগদানের পর কোন শিক্ষার্থী বৃত্তি পায়নি।

প্রধান শিক্ষক মোঃ আশরাফ মাহমুদ ও তার স্ত্রী বেগম রোজিনা আক্তারের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে মোঃ সাইদুর রহমান সহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা কয়েক মাস আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ে অভিযোগ করেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২০/০৯/২০১৪ বিষয়টি নিয়ে সরে-জমিন তদন্তে আসেন অধিদপ্তরের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মোঃ শাহাদাৎ হোসেন। তিনি তদন্তে এসে অভিযোগের সত্যতার প্রমান পান এবং তাদের উভয়কে অন্যত্র বদলী করার জন্য বাপ্রাশি/পরিচালক (প্রশাঃ ও অর্থ) /২০১৪-/১০১৪ নং স্মারকে বরিশাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও গৌরনদী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু রহস্য জনক কারণে অদ্যবধি অভিযুক্তদের বদলীর আদেশ কার্যকর হয়নি। পরবর্তিতে গত ১৯ জানুয়ারী (স্মারক নং-৩৮.২০৫.০০১.০০.০০.০০৬৯.২০১০/১০) পূনরায় তাদেরকে বদলীর আদেশ দিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মুহাম্মদ আবদুল হালিম। কিন্তু এর পরেও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ আশরাফ মাহমুদ ও তার স্ত্রী বেগম রোজিনা আক্তার এখনও ওইস্কুলে বহাল তবিয়তে রয়েছেন। তাই এ বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।

এ ব্যাপারে বরিশাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নাসির উদ্দিনের সাথে মোবাইল ফেনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান শিক্ষকের বদলীর ব্যাপারে আমি প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের পরিচালক ও মহাপরিচালকের নির্দেশের অনুলিপি পেয়েছি। তবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশ না পাওয়ার কারণে তাদের অন্যত্র বদলী করতে পারছিনা।

সংবাদ : বেলাল হোসেন

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button