আর্কাইভ

হরতালের কারনে বরিশাল যেন ময়লার নগরীতে পরিনত

স্টাফ রিপোর্টার ॥  বরিশালে ১৮ দলের ডাকা হরতালের সময় পিকেটাররা সিটি কর্পোরেশনের ময়লা বহনকারী গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে গত দু’দিনের হরতালে বিসিসি’র ময়লাবহনকারী গাড়ি তাদের কার্যক্রম বন্ধ রাখায় পরিচ্ছন্ন বরিশাল নগরী ময়লার নগরীতে পরিনত হয়েছে। এ নিয়ে আজ বুধবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিসিসি’র মেয়র শওকত হোসেন হিরন।

দুপুর দেড়টায় বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মেয়র হিরন বলেন, হরতাল একটি রাজনৈতিক কর্মসুচী হতে পারে। এদেশে হরতাল দেয়ার সবার অধিকার রয়েছে। আর এতে ময়লা বহনকারী যানবাহন, এ্যাম্বুলেন্স, ঔষধের দোকান, পত্রিকা বহনকারী পরিবহন আওতামুক্ত থাকার কথা। কিন্তু ১৮ দলীয় জোটের কর্মীরা তা অমান্য করে আসছে। ইতিপূর্বে তারা হরতালের সময় বিসিসি’র ময়লাবহনকারী কয়েকটি গাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুরসহ চালক ও কর্মীদের মারধর করে আহত করেছে। ফলে হামলা ও ভাংচুর আতংকে গত মঙ্গল ও গতকাল বুধবার বিসিসি’র পরিছন্নকর্মীরা নগরীতে ময়লা অপসারন করেনি। এতে এবারের হরতালে দু’দিনে প্রায় পাঁচ টন ময়লা জমা হয়ে দুগর্ন্ধে পুরো নগরী ময়লার নগরীতে পরিনত হয়েছে। মেয়র লিখিত বক্তব্যে আরো উল্লেখ করেন, এখন নগরবাসীকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারা কি হরতালের প্রতিবাদ করবেন, নাকি হরতাল আহবানকারীরা উল্লেখিত যানবাহনগুলো পিকেটারদের হাত থেকে রক্ষা করবেন।

এ জন্য খুবশীঘ্রই বরিশাল জেলা বিএনপির সভাপতি আহসান হাবিব কামাল ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার-এমপি’র কাছে চিঠি দেয়া হবে বলেও লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বিসিসির নিবার্হী কর্মকর্তা নিখিল চন্দ্র দাশ, মেয়রের একান্ত সচিব মোঃ আলিমুল্লাহ, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সোবাহান উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »