আর্কাইভ

বরিশালে জামায়াতের অর্ধদিবস হরতাল চলছে ॥ সমর্থন দিলেও মাঠে নেই বিএনপি

বিশেষ প্রতিনিধি ॥  বরিশাল বিভাগে জামায়াতের ডাকা অর্ধদিবস হরতাল চলছে। দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ন ও ঢিলেঢালাভাবেই হরতাল পালিত হচ্ছে। হরতালের পক্ষে ভোরে নগরীতে ঝটিকা মিছিল, সড়কে অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিষ্ফোরন করে পিকেটিং করেছে জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা। পিকেটিংকালে এক শিবির কর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন। বরিশাল মহানগর জামায়াতের আমীরকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে আজ রবিবার ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ হরতালের আহ্বান করেছে জামায়াত। শনিবার সন্ধ্যায় জামায়াতের হরতালে ১৮ দল সমর্থন দিলেও মাঠে নেই তারা। হরতালের পক্ষে কোন কর্মসূচী পালন করেনি ১৮ দল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রবিবার ভোর সাড়ে ৫টায় নগরীর সরকারি বিএম কলেজ এলাকায় একটি অটোরিক্সায় ভাংচুরের চেষ্টা করে বিএম কলেজ শাখা ছাত্রশিবিরের কর্মীরা। তারা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে হরতালের পক্ষে শ্লোগান দেয়। এসময় দুটি ককটেলে বিষ্ফোরন ঘটনায় শিবির কর্মীরা।

ভোর ৬টায় নগরীর বিএম স্কুল এলাকায় বরিশাল মহানগর শিবিরের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল নাহিয়ানের নেতৃত্বে একটি ঝটিকা মিছিল বের হয়। মিছিল থেকে সড়কে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এসময় পুলিশ মাহমুদুর রহমান নামে এক শিবির কর্মীকে আটক করে।
একই সময় নগরীর নবগ্রাম রোড শামসু মিয়ার গ্রেজ এলাকায় সড়কে গাছের গুড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে পিকেটিং করে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা।

এছাড়াও ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের কাশিপুর, গড়িয়ারপাড়, নবগ্রাম রোড, সিএ্যান্ডবি রোড থানা কাউন্সিল এলাকায় সহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ঝটিকা মিছিল ও সড়ক অবরোধের খবর পাওয়া গেছে। তবে কোথাও বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে, বিভাগের ঝালকাঠী, ভোলা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা জেলায় ঢিলেঢালা হরতালের খবর পাওয়া গেছে। ওইসব এলাকায় যানবাহস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
অন্যদিকে, হরতালে বরিশালে স্থানীয় ও অভ্যন্তরীন রুটের লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। নির্ধারিত সময়ে ছেড়ে গেছে লঞ্চ। তবে বরিশাল কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নথুল্লাবাদ থেকে অভ্যন্তরীন ও দূরপাল্লা রুটের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

উল্লেখ্য, বরিশাল মহানগর জামায়াতের আমীর মুয়াযয্ম হোসাইন হেলালকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে আজ রবিবার ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত হরতালের ডাক দেয় জামায়াত। প্রথমে তারা বরিশাল মহানগরীতে এবং পরে পুরো বরিশাল বিভাগের এই হরতালের আহ্বান করা হয়।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »