আর্কাইভ

ঝালকাঠিতে বিদ্যুতের ঝুঁকিপূর্ন ভবনের বাসিন্দারা ঘর ছাড়ছেন

আহমেদ আবু জাফর, ঝালকাঠি ॥  বিদ্যুতের ঝুঁকিপূর্ন কোয়ার্টার থেকে কর্মচারীরা ইতিমধ্যে নেমে যেতে শুরু করেছে। গত ক’দিনে ভবনটি থেকে ৩টি পরিবার বাসা ছেড়ে গেছে। দীর্ঘদিন ধরে ভবনটিতে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঝুঁকিতে বসবাস করলেও কর্তৃপক্ষ সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেয়নি। ফলে ধীরে ধীরে ভবনের ছাদ ও পিলার ধবসে  ব্যবহার অনুপযোগি হয়ে পড়ছে। ইতিমধ্যে ভবনে থাকা পরিবারগুলোর বেশ ক’জন বাসিন্দা ছাদের টুকরো ভেঙ্গে আহত হয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে ভবনের বাসিন্দারা নিরাপত্তাহীনতায় বসবাস করছে।

জানা গেছে, ১৯৯৫ সালে ঝালকাঠি বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু হওয়ার পর কোটি টাকা ব্যয়ে আবাসিক ভবনটি নির্মান করা হয়। নিম্মমানের মালামাল দিয়ে ভবনটি নির্মানের ফলে অল্পসময়ের ব্যবধানে এটি ব্যবহার অনুপযোগি হয়ে পড়ে। ঠিকাদারের দূর্নীতির কারনে এনিয়ে আদালতে মামলাও রয়েছে। ভবনটিতে থাকা বাসিন্দা ও বিদ্যুৎ শ্রমিকের নেতা হাসানুর রহমান সেরনিয়াবাদ জানায়, ভবনটির সংস্কারের ব্যাপারে আমরা বরিশাল ও খুলনার কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষন করেছি। কিন্তু তারা এ পর্যন্ত তেমন কোন পদক্ষেপ না নেয়ার ইতিমধ্যে ভবনের বাসিন্দারা বাইরে ঘর ভাড়া করে চলে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে নির্বাহী প্রকৌশলী মো. বাসেতুজ্জামান জানান, ভবনটি খুবই দূর্বল ও ঝুঁকিপূর্ন। ইতিমধ্যে দু’টি পরিবার ভবন ছেড়ে চলে গেছেন। বাকীরাও চলে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »