আর্কাইভ

বাবুগঞ্জে ছাত্রলীগ সভাপতির লিঙ্গ কর্তন

বিশেষ প্রতিনিধি ॥  বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির লিঙ্গ কর্তনের ঘটনায় পুরো উপজেলা জুড়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। আজ শুক্রবার লিঙ্গ কর্তনের বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে দিনভর পুরো উপজেলা জুড়ে ব্যাপক আলোড়নের সৃষ্টি হয়েছে। লোকলজ্জায় ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ মিলনকে গোপনে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

স্থানীয় বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে ছাত্রলীগ নেতা মিলনের সাথে স্থানীয় এক প্রাইমারি শিক্ষিকার অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। থানা সংলগ্ন মিলনের বাসার প্রায় এক’শ গজ দুরত্বে ওই শিক্ষিকা তার ছোট বোনকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলো। কাছাকাছি বসবাসের সুবাধে প্রায়দিন রাতেই তাদের দু’জনের অবৈধ মেলামেশা চলতো। এরইমধ্যে ওই শিক্ষিকার ছোট বোনের ওপর লোলুপ দৃষ্টি পরে মিলনের। ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মিলন ওই শিক্ষিকার সাথে মেলামেশা করার পর বাসা থেকে বের হওয়ার সময় কৌশলে শিক্ষিকার ছোট বোনের রুমে প্রবেশ করে তাকে ঝাঁপটে ধরে। এসময় দু’বোন মিলে মিলনের লিঙ্গ কর্তন করে দেয়।

ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে ছাত্রলীগ সভাপতি মিলনের চাচাতো ভাই পারভেজ মৃধা জানান, অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা মিলনের ওপর হামলা চালিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। গভীর রাতেই মিলনের সহযোগীরা প্রথমে তাকে বরিশাল শেবাচিম ও লোকলজ্জায় তাৎক্ষনিক ঢাকায় নিয়ে গোপনে চিকিৎসা দিচ্ছেন। বাবুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ শাহআলম জানান, ছাত্রলীগ সভাপতি মিলন ভোর রাতে বাথরুম থেকে পা পিছলে পড়ে গিয়ে আহত হয়েছেন বলে তাকে মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন। এলাকায় নানা গুঞ্জনের বিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি মিলনের কাছে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি ফোনটি বিচ্ছিন্ন করে বন্ধ করে দেন বলেও ওসি উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »