আর্কাইভ

আগৈলঝাড়া-উজিরপুর সীমান্ত এলাকায় মাদকসেবী ও জুয়ারীদের আড্ডা

থাকলেও প্রশাসন এ ব্যাপারে পদক্ষেপ না নেওয়ায় এদের দৌরত্ব বেড়ে যাওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে এক প্রকার আতঙ্ক বিরাজ করছে। জানাগেছে ২ উপজেলার সিমান্তবর্তী জল্লা ইউনিয়নের ইন্দুরকানী  (কুলের বাজার) গ্রামের পরিতোষ বাড়ৈর পরিত্যাক্ত ঘরে স্থানীয় সুধাংশু বাড়ৈ, শেখর হালদার, অঞ্জন বাড়ৈ, সুমন গাইনকে জুয়া খেলা অবস্থায় ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে ঐ গ্রামের সুবোধ বাড়ৈ, প্রশান্ত রায়, কিশোর বাড়ৈ, শচীন বাড়ৈ সহ স্থানীয় লোকজন ধরে ফেলে। এক পর্যায়ে জুয়ারীদের তাদের অভিভাবকরা মুছলেকা দিয়ে শালিস ব্যবস্থায় বিচার করার আশ্বাস দিয়ে ছাড়িয়ে নেয়। এ ঘটনা এলাকায় ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পরলেও প্রশাসনের ঝামেলা এড়াতে অভিযুক্ত ও তার অভিভাবকরা সু-কৌশলে মূল বিষয় ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।

এলাকাবাসী জানান এ ঘটনা প্রশাসনকে জানালেও অদ্যবধি তাদের কোন পদক্ষেপ চোখে পরছেনা। তথ্যানুসন্ধানে জানাগেছে দীর্ঘদিন যাবৎ  কুলের বাজার, সাহেবেরহাট, কারফা, জল্লা, পীড়েরপাড়, টাকাবাড়ী, মিঞার হাট, বারপাইকা সহ  ২ উপজেলার সিমান্তবর্তী বিভিন্ন স্থানে  চিহ্নিত কিছু মাদকসেবী-জুয়ারী তাদের দল ভারী করতে স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থীদের এ পেশায় উৎসাহিত করছে, যে কারনে অভিভাবকমহল এক অজানা আতঙ্কে ভুগছে। এই অপকর্মের বিরুদ্ধে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সচেতন মহল প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »