Gournadi.com

মাহিলাড়ায় ছাত্রলীগ নেতার হাতের রগ কর্তন

বরিশালের গৌরনদীতে মোটরসাইকেল ভাড়াকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে স্থানীয় এক ছাত্রলীগ নেতার হাতের রগ কর্তন করেছে প্রতিপক্ষরা। ছাত্রলীগ নেতা রিমন খোন্দকারকে (২০) মুমুর্ষ অবস্থায় বরিশার শেরে-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানান, নলচিড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহপ্রচার সম্পাদক রিমন খোন্দকার মঙ্গলবার পার্বত্য শান্তি চুক্তির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শোভা যাত্রায় বরিশাল যাওয়ার জন্য ৫০০ টাকায় মোটরসাইকেল ভাড়া করে। রিমনের চাচা ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক জামাল হোসেন খোন্দকার জানান, লেবুতলী এলাকা থেকে ভাড়ায় চালক বুলবুল হোসেনসহ মোটরসাইকেল নিয়ে ওই দিন সকালে সরকারি গৌরনদী কলেজ মাঠে আসে। এ সময় চালক বুলবুল তার মোটরসাইকেল নিয়ে বরিশালে শোভাযাত্রায় না যাওয়ার অপারগতা প্রকাশ করেন। এ নিয়ে বুলবুলের সাথে রিমনের বাকবিতান্ডা হয়। বাকবিতান্ডার এক পর্যায়ে রিমন বুলবুলকে না নিয়ে শোভা যাত্রায় যোগ দেয়।

এর জের ধরে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রিমন উপজেলার মাহিলাড়া বাজারে গেলে বুলবুল ও তার ভাই জাফর আহম্মেদ ও বেল্লাল হোসেন ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি আঘাত করে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রিমনের ডান হাতের রগ কেটে যায়। স্থানীয়রা রিমনকে উদ্ধার করে প্রথমে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে ও পরবর্তীতে গভীর রাতে বরিশার শেরে-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম জানান, এ ঘটনায় রিমনের পিতা মোখলেসুর রহমান খোন্দকার বাদি হয়ে তিন জনের নাম উল্লেখসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের জোর প্রচেষ্ঠা চলছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply