বরিশাল

বরিশালে বড়দিন উদ্যাপিত

‘নিবেদিত জীবন বর্ষ’ পোপ ফ্রান্সিসের এই বাণীকে ধারণ করে সারা বিশ্বের সাথে একযোগে বরিশালেও উদ্যাপিত হচ্ছে খ্রীষ্টান ধর্মলম্বীদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। বুধবার রাতে খ্রীষ্টীয় যাগের মধ্যদিয়ে শুরু হওয়া এই উৎসবের দ্বিতীয় যাগ অনুষ্ঠিত হয় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে আটটায়।

অনুষ্ঠান পহেলা জানুয়ারী খ্রীষ্ট্রীয় বর্ষ বরণের মধ্যদিয়ে সমাপ্তি ঘটবে বলে জানিয়েছেন ক্যাথলিক চার্চের ফাদার লরেন্স বরুণ গোমেজ। প্রভূ যীশু খ্রীষ্টের জন্মদিন উদ্যাপন উপলক্ষে বরিশাল নগরীর ক্যাথলিক, ব্যাপ্টিস্ট ও অক্সফোর্ড মিশনের গির্জাগুলো বর্ণিল আলোকচ্ছটায় সাজানো হয়েছে। যীশু খ্রীস্ট্রের জন্ম স্থান বেথলেহেমের গোশালার এবং মাদার মেরির প্রতিকৃতি দিয়ে গীর্জার আঙ্গিনা সাজানো হয়েছে। খ্রীষ্ট ধর্মালম্বীরা দিবসটি উপলক্ষে নতুন পোষাক ও নানা খাবারের আয়োজন করেছেন।

সকাল সাড়ে আটটায় বীরশ্রেষ্ঠ্য ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর (সদর রোডে) সড়কের ক্যাথলিক চার্চে দ্বিতীয় খ্রীষ্ট যাগ অনুষ্ঠিত হয়। এখানে প্রার্থনা পরিচালনা করেন ফাদার লরেন্স বরুণ গোমেজ। এসময় তিনি বলেন, দুই হাজার বছর আগে প্রভূ যীশু মানবের মুক্তির জন্য শান্তি ও সুন্দরের বাণী নিয়ে পৃথিবীতে এসেছিলেন। এই শান্তি ও ভালোবাসা দিয়ে বাংলাদেশ তথা পৃথিবীর সকল দেশ ও মনুষের মধ্যে মঙ্গল বিরাজ করুক। অন্য ধর্মের প্রতি সহানভূতিশীল হোক। বাংলাদেশ যারা পরিচালনা করছেন তাদের মঙ্গল কামনা এবং দেশে শান্তি বিরাজিত হোক এই কামনা করেন প্রার্থনায়।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply